রংপুরের হাঁড়িভাঙা আম

অবস্থিত আছে রংপুর
রংপুরের হাঁড়িভাঙা আম

বাংলাদেশের একমাত্র আশ বিহীন আমের নাম হচ্ছে রংপুরের হাড়িভাঙ্গা আম। বিশ্বখ্যাত, স্বাদে গন্ধে অতুলনীয় হাঁড়িভাঙা আম বদলে দিয়েছে রংপুরের (Rangpur) পদাগঞ্জের অর্থনৈতিক ভাগ্য। হাঁড়িভাঙা (Haribhanga) আমটির ‘ইতিহাসের’ গোড়াপত্তন করেছিলেন নফল উদ্দিন পাইকার নামের এক বৃক্ষবিলাসী মানুষ। ৪৫ বছর আগে মারা যান তিনি। তিনিই প্রথম জনসম্মুখে এনেছিলেন এই আম। শুরুতে … বিস্তারিত

কানসাট আম বাজার

অবস্থিত আছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ
কানসাট আম বাজার

রাজশাহীর চারঘাট ও বাঘায় অনেক আমের বাগান থাকলেও আম বাগানের আসল মজা পেতে হলে আপনাকে যেতে হবে চাঁপাইনবাবগঞ্জে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সদর থেকে ২৩ কিলোমিটার দূরে শিবগঞ্জ উপজেলায় কানসাট বাজারের (Kansat Mango Market) অবস্থান। সোনামসজিদ স্থলবন্দর সড়কে অবস্থানের কারণে এই এলাকায় ব্যবসায়ীদের আনাগোনা থাকে সব সময়। আমের মৌসুমে এই বাজারের যেদিক চোখ যায় … বিস্তারিত

ভাসমান পেয়ারা বাজার

অবস্থিত আছে ঝালকাঠি
Guava floating market (ভাসমান পেয়ারার হাট)

এশিয়া মহাদেশের বৃহত্তম পেয়ারা (Guava) বাগান গড়ে উঠেছে তিন জেলা ঝালকাঠি বরিশাল পিরোজপুরের সিমান্তবর্তী এলাকায়। জেলা সমূহের ২৬ গ্রামের প্রায় ৩১ হাজার একর জমির উপর গড়ে উঠেছে এই পেয়ারা বাগান। এ সব জায়গার প্রায় ২০ হাজার পরিবার সরাসরি পেয়ারা চাষের সঙ্গে জড়িত৷ এছাড়া বরিশালের বানারিপাড়া উপজেলাও পেয়ারা চাষের জন্য বিখ্যাত৷ বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলের ঝালকাঠি জেলার … বিস্তারিত

পদ্মবিল, করপাড়া

অবস্থিত আছে গোপালগঞ্জ
পদ্মবিল, করপাড়া, গোপালগঞ্জ

জলজ ফুলের রানী বলা হয় পদ্মকে। প্রাকৃতিকভাবে জন্ম নেওয়া পদ্মফুল সৌন্দর্য বাড়িয়ে দিয়েছে গোপালগঞ্জের বিলের চিত্র। দূর থেকে মনে হবে যেন ফুলের বিছানা পেতে রেখেছে কেউ। প্রতিদিনই এ সৌন্দর্য উপভোগ করতে আসছে দর্শনার্থীরা! গোপালগঞ্জ জেলার চার পাশে রয়েছে অসংখ্য বিল। তার মধ্যে অন্যতম সদর উপজেলার বলাকইড় বিল। গোপালগঞ্জ জেলা সদর থেকে মাত্র ১২ … বিস্তারিত

দর্শনা

অবস্থিত আছে চুয়াডাঙ্গা
দর্শনা

বাংলাদেশের চুয়াডাঙ্গা জেলার অন্তর্গত সীমান্ত শহর দর্শনা। বৃটিশ আমল থেকে দর্শনায় আন্তর্জাতিক মানের কম্পিউটারাইজড সুবিধাসহ ১ কিলোমিটারের ব্যবধানে ২টি রেলওয়ে ষ্টেশন অবস্থিত। ভারত বাংলাদেশ সৌহার্দ্যের বহিঃপ্রকাশস্বরূপ ২০০৭ সালের ১৪ এপ্রিল হতে মৈত্রী ট্রেন দর্শনা-গেদে সীমান্ত দিয়ে চলাচল করছে। এছাড়া ১৯৪৭ সালে ভারত বিভক্তির পর থেকে দর্শনায় শুল্ক ষ্টেশন চালু হয় যা অদ্যাবধি চালু … বিস্তারিত

লিচু বাগান, দিনাজপুর

অবস্থিত আছে দিনাজপুর
লিচু বাগান, দিনাজপুর

দিনাজপুর, লিচুর জন্যে দেশব্যাপী পরিচিত এই জেলাটি। এই জেলার ১৩ উপজেলাতেই লিচু চাষ হয়। লিচুর সিজনে প্রতিটি লিচু গাছে শোভা পায় থোকায় থোকায় মুকুল। প্রতি বছরই ক্রমান্বয়ে বেড়ে চলেছে লিচু চাষের জমির পরিমাণ। এখন সারা দেশে কম বেশি লিচু চাষ হলেও দিনাজপুরের লিচুর কদর আলাদা। দিনাজপুরের লিচুর মধ্যে চায়না থ্রি, বেদেনা, বোম্বাই … বিস্তারিত

রোজ গার্ডেন

অবস্থিত আছে ঢাকা
রোজ গার্ডেন

পুরান ঢাকার টিকাটুলির কেএম দাস লেনে রোজ গার্ডেন নামের প্রাসাদসম বাড়িটি অবস্থিত যা বলধা গার্ডেন থেকে অল্প দূরত্বে। পাশেই রয়েছে খ্রিষ্টান কবরস্থান। ১৯৪৯ সালে এই রোজ গার্ডেনেই গঠিত হয় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। শ্বেত পাথরের মূর্তি, কৃত্রিম ফোয়ারা, ঝর্ণা, শান বাঁধানো পুকুর ও অনন্য স্থাপত্য শৈলিতে নির্মিত ভাস্কর্য– এক রাজকীয় বাগানবাড়ি রোজ … বিস্তারিত

তুক অ / লামোনই ঝর্ণা

অবস্থিত আছে বান্দরবান
তুক অ / লামোনই ঝর্ণা

তুক অ / লামোনই ঝর্ণাটি পার্বত্য বান্দরবান জেলার আলিকদমে অবস্থিত। আর ঝর্ণার নাম সাধারনত বেশীর ভাগই ঝিরির নাম অনুসারে হয়। ঝর্ণাটি যে ঝিরিতে তার নাম ব্যাঙ ঝিরি। যেহেতু মুরং এলাকায় অবস্থান তাই তাদের ভাষায় ব্যাঙ কে ” তুক” বলে আর ঝিরিকে “অ ” বলে। ডামতুয়া অর্থ হলো এর খাড়া আকৃতির জন্য এর … বিস্তারিত

বাঁশবাড়িয়া সমুদ্র সৈকত

অবস্থিত আছে চট্টগ্রাম
বাঁশবাড়িয়া সমুদ্র সৈকত

চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড উপজেলা বিভিন্ন কারনে পর্যটকদের কাছে আর্কষণীয় স্থান হিসেবে বিবেচিত। নৈসর্গিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি সীতাকুন্ডে রয়েছে অশেষ নয়নাভিরাম চন্দ্রনাথ পাহাড়, ইকোপার্ক সবুজ বনাঞ্চল বেষ্ঠিত আঁকা-বাঁকা পাহাড়ী পথ, পাহাড়ী লেকের মনোরম দৃশ্য। কিছুদিন আগে নতুন একটি পর্যটন স্থান যুক্ত হয়েছে আগের লিস্টে, আর … বিস্তারিত

চালন্দা গিরিপথ

অবস্থিত আছে চট্টগ্রাম
চালন্দা গিরিপথ

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে পরিপূর্ন চালন্দা গিরিপথ। গিরিপথটি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭’শ ৫৩ একর আয়তনের মধ্যেই অবস্থিত। এডভাঞ্চার  আর ভ্রমণ প্রিয় মানুষদের ভ্রমণভাণ্ডারে এখন নতুন নাম চালন্দা গিরিপথ। তাইতো প্রতিদিনই দলবদ্ধ হয়ে নানান দল পাড়ি জমাচ্ছে এই নৈসর্গিক গিরিপথের দিকে। যেভাবে যাবেনঃ চট্টগ্রামের বটতলী ষ্টেশন/ষোলশহর ষ্টেশন হতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এর ট্রেনে করে চলে যান চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়। ভার্সিটির ষ্টেশন হতে অল্প একটু … বিস্তারিত

হাজারিখিল অভয়ারণ্য

অবস্থিত আছে চট্টগ্রাম
হাজারিখিল অভয়ারণ্য

চট্টগ্রাম শহর থেকে ৪৫ কিলোমিটার উত্তরে রামগড়-সীতাকুণ্ড বনাঞ্চল। এ বনাঞ্চলের মধ্যেই রয়েছে বিচিত্র সব বন্যপ্রাণীর অভয়ারণ্য হাজারিখিল, যেখানে আছে ১২৩ প্রজাতির পাখি। রঙ-বেরঙের এসব পাখির মধ্যে রয়েছে বিপন্ন প্রায় কাঠময়ূর ও মথুরা। আছে কাউ ধনেশ ও হুতুম পেঁচাও। বিভিন্ন প্রজাতির উদ্ভিদের সমারোহ থাকার কারণে চিরসবুজ এই বনে এমন কিছু প্রজাতির পাখি পাওয়া গেছে, যা অন্য কোনো … বিস্তারিত

চাঁচড়া শিব মন্দির

অবস্থিত আছে যশোর
চাঁচড়া শিব মন্দির, যশোর

যশোরের সদর থানার চাঁচড়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে মাত্র চার কিলোমিটার দূরে চাঁচড়া রাজবাড়ী অবস্থিত। চাঁচড়া শিব মন্দিরটি একটি ‘আট-চালা’ ধরনের মন্দির। ‘আট-চালা’ রীতি বাংলার মন্দির স্থাপত্যকলার বিশেষ এক ধরনের রীতি যেখানে বর্গাকার বা আয়তাকার গর্ভগৃহের ‘চৌ-চালা’ ছাদের উপরে আরেকটি ছোট ‘চৌ-চালা’ ছাদ নির্মান করা হয়। এই শিব মন্দিরটির সামনের দিকের তিনটি খিলান যুক্ত প্রবেশদ্বার আছে … বিস্তারিত

আলেকজান্ডার ক্যাসেল

অবস্থিত আছে ময়মনসিংহ
আলেকজান্ডার ক্যাসেল

ময়মনসিংহ শহরের এক উল্লেখযোগ্য স্থাপনা আলেকজান্ডার ক্যাসেল বা আলেকজান্দ্রা ক্যাসেল। এই স্থাপনাটি শহরের প্রান কেন্দ্রে অবস্থিত। আলেকজান্ডার ক্যাসেল ময়মনসিংহ শহরের পুরোনো একটি স্থাপনা। মহারাজা সূর্যকান্ত আচার্য ১৮৭৯ সালে প্রায় ৪৫ হাজার টাকা ব্যয় করে ততকালীন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আলেকজান্ডারের সম্পত্তি রক্ষার্থে … বিস্তারিত

ভাগ্যকুল জমিদার বাড়ি

অবস্থিত আছে মুন্সীগঞ্জ
ভাগ্যকুল জমিদার বাড়ি

মূলত ভাগ্যকুলের জমিদারদের অনেকগুলো বাড়ির মধ্যে একমাত্র টিকে থাকা বাড়িটি বান্দুরায় অবস্থিত। ভাগ্যকুলের এই জমিদার বাড়িটি বানিয়েছিলেন জমিদার যদুনাথ সাহা। দ্বিতল বাড়ীর সামনে রয়েছে আটটি বিশাল থাম, দেখতে অনেকটা মানিকগঞ্জের বালিয়াটি জমিদার বাড়ীর মত। ভবনটির চারিদিকেই এমন থাম বিশিষ্ট এই স্থ্যাপত্যটি গ্রীক স্থাপত্যের ঘরনায় নির্মিত। ভবনের ভেতরে নকশা-সাপ, ময়ূর, ফুল, পাখি … বিস্তারিত

মুড়াপাড়া জমিদার বাড়ি

অবস্থিত আছে নারায়ণগঞ্জ
মুড়াপাড়া জমিদার বাড়ী

নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ থানার অতি পরিচিত একটি স্থান মুড়াপাড়া জমিদার বাড়ি। এটি ঢাকা থেকে ২৫ কি.মি. দূরে নরসিংদী রোডে অবস্থিত। জমিদার রামরতন ব্যানার্জী ১৮৮৯ সালে ৪০ হেক্টর জমির উপর নির্মাণ শুরু করেন মুড়াপাড়া জমিদার বাড়িটির। তিনি নাটোর স্টেট এর কোষাধ্যক্ষ ছিলেন এবং তার সততার কারণে একটি উচ্চ পদে উন্নীত হন। … বিস্তারিত