দুধপাথরি, কাশ্মীর

দুধপাথরি

দুধপাথরি (Doodhpathri) হিমালয় পর্বতমালার পীর পাঞ্জাল রেঞ্জে গামলার মতো এক উপত্যকা যা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৯ হাজার ফুট উঁচুতে জম্মু ও কাশ্মীরের বুডগাম (Budgam) জেলায় অবস্থিত। শ্রীনগর থেকে ৪২ কিলোমিটার দূরে প্রকৃতির এক আশ্চর্য লীলাভূমি এই দুধপাথরি। দুধপাথরি নামের অর্থ দুধের উপত্যকা, এর সঙ্গে কাশ্মীরের বিখ্যাত মুসলিম সাধক শাইখ … বিস্তারিত

ইয়েলবং রিভার ক্যানিয়ন ট্রেক, কালিম্পং

ইয়েলবং রিভার ক্যানিয়ন ট্রেক

ইয়েলবং (Yelbong) কালিম্পং পাহাড়ের একটি ছোট গ্রামের নাম যেখানে কেবল ১৫ থেকে ২০ টি পরিবারের বসোবাস। শিলিগুড়ি থেকে দুই কিংবা আড়াই ঘন্টার মাঝে পৌঁছে যাওয়া যায় এই স্বর্গরাজ্যে। বাখরাকোট থেকে ৭ কিলোিটার দূরে অবস্থিত এই ইয়েলবং। মেইন রোড থেকে ৪ কিলোিটারের জঙ্গল, ছোটো ছোটো … বিস্তারিত

ইউসমার্গ

ইউসমার্গ

ইউসমার্গ (Yousmarg) ভারতের জম্মু ও কাশ্মীর উপত্যকার পশ্চিমে বাডগাম জেলায় অবস্থিত একটি পাহাড়ি স্টেশন যা ঝিলাম নদীর উপনদ, দুধগঙ্গা নদীর তীরে অবস্থিত। এটি শ্রীনগর থেকে ৪৭ কিমি দক্ষিণে অবস্থিত। ইউসমার্গ অর্থ যাদুঘর। স্থানীয়রা বিশ্বাস করেন যে যিশু কাশ্মীরে এসেছিলেন এবং … বিস্তারিত

পাটনিটপ

পাটনিটপ (Patnitop) ভারতের কাশ্মীর প্রদেশে অবস্থিত একটি হিল ষ্টেশন যা জম্মু থেকে ১১২ কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থিত। পাটনিটপ এর অবাক করা সৌন্দর্য, পাইনের ঘেরাটপে শোভিত পাহাড়, বিস্তীর্ণ সবুজের ছায়াবন আপনাকে মোহিত করবেই। এখান থেকে সানসার ঘুরে আসতে পারেন খুব সহজেই। পাটনিটপে আছে প্যারাগ্লাইডিং এর ব্যবস্থা। এছাড়া এখান … বিস্তারিত

তাবাকোশি, মিরিক

তাবাকোশি

তাবাকোশি (Tabakoshi) মিরিক এর কাছে রংভাং নদীর ধারে ছোট্টো একটি পাহাড়ি গ্রাম যার উচ্চতা প্রায় ৩০০০ ফুট l কমলালেবু গাছ আর চা বাগানে ঘেরা একটা মিষ্টি পাহাড়ি জনপদl নামটা শুনতে কিছুটা জাপানি মনে হলেও আদতে এটি ভারতের উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং জেলায় অবস্থিত একটি ছোট্ট গ্রাম। তাবাকোশী, যা … বিস্তারিত

মোকোচুং, নাগাল্যান্ড

মোকোচুং

মোকোচুং (Mokokchung) ভারতের উত্তর নাগাল্যান্ডের একটি ছোট্ট পাহাড়ি শহর। মূলত মোকোচুং শহরকে কেন্দ্র করেই ১৬টি ওয়ার্ড নিয়ে গড়ে উঠেছে গোটা মোকোচুং জেলা এবং মিউনিসিপ্যালিটি অঞ্চল। কিন্তু মোকোচুং বিখ্যাত হয়েছে আও মানবগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক এবং সামাজিক পীঠস্থান হিসেবে। ব্রিটিশ আমলে নাগা পর্বতে আসাম রাইফেলসের প্রথম আউটপোস্ট হিসেবে গড়ে … বিস্তারিত

ওয়ারী ছড়া, মেঘালয়

ওয়ারী ছড়া

ওয়ারী ছড়া (Wari Chora) মেঘালয় রাজ্যের দক্ষিণ গারো পাহাড়ে পারমেগ্রে নামক একটি ছোট গ্রামে অবস্থিত একটি রিভার ক্যানিয়ন যা তুরা শহর থেকে ৮৭ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। ওয়ারী ছড়া শব্দের ওয়ারি মানে গভীর নদী। এই জায়গাটি সম্প্রতি আবিষ্কৃত হয়েছে তবে এটি ইতিমধ্যে একটি জনপ্রিয় পর্যটন গন্তব্য হয়ে উঠেছে। এই ওয়ারী ছড়া প্রায় ৪৫ ফুট গভীর এবং … বিস্তারিত

মাওরিংখাং ব্যাম্বু ট্রেক

মাওরিংখাং ব্যাম্বু ট্রেক

মাওরিংখাং ব্যাম্বু ট্রেককে (Mawryngkhang Bamboo Trek) ভারতের মেঘালয় রাজ্যের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ট্রেক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। মাওরিংখাং ট্রেকটি শিলং থেকে ৪৮ কিলোমিটার এবং চেরাপুঞ্জি থেকে ৫৬ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। মাওরিংখাং ট্রেককে ব্যাম্বু ট্রেক বলা হয় কারন এই পুরো ট্রেকটি বাঁশের … বিস্তারিত

লাইটলুম গ্র্যান্ড ক্যানিয়ন

লাইটলুম গ্র্যান্ড ক্যানিয়ন

মেঘালয় রাজ্যের শিলং এর স্মিত গ্রামের এর কাছে লাইটলুম গ্র্যান্ড ক্যানিয়ন (Laitlum Grand Canyon) একটি অসাধারন ভিউ পয়েন্ট। লাইটলুম শিলং শহর থেকে ২২ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত একটি ক্যানিয়ন যেখানে সব সময় থাকে মেঘের আনাগোনা। এখানে মেঘেরা গাভীর মতো চড়ে বেড়ায়। লাইটলুম অর্থ হলো আলোর শেষ। এটি হচ্ছে শিলং এর সবচেয়ে উঁচু স্থান, একে … বিস্তারিত

গোপালধারা টি এস্টেট, মিরিক, দার্জিলিং

গোপালধারা

মিরিক সাবডিভিশনের গোপালধারা টি এস্টেট (Gopaldhara Tea Estate) দার্জিলিং এর সুস্বাদু এবং সুগন্ধী চা বাগানগুলির মধ্যে অন্যতম। ১৯৫৫ সালে তৈরী এই বাগানের চা ৬০ বছরের‌ও বেশি সময় ধরে চা প্রিয় মানুষের রসনাতৃপ্তি করে আসছে। সারা পৃথিবী জোড়া খ্যাতি এই চায়ের। সবুজ পাইন পথে বেয়ে চলা রাস্তা আর সৃদৃশ্য চা বাগানটি এখন টুরিস্টদেরও অন্যতম … বিস্তারিত

কোঠিগাঁও, দার্জিলিং এর আনকোরা অফবিট ডেস্টিনেশন

কোঠিগাঁও

দার্জিলিং জেলার মিরিকের কাছে, পোখরিয়াবং টি এস্টেটের মাঝে সবুজ প্রকৃতির কোলে কোঠিগাঁও (Kothi Gaon) একটি ছোট্ট পাহাড়ী গ্রাম। এই অঞ্চল মূলত দার্জিলিং এর চা বাগানগুলির মধ্যে বিস্তৃত। সবুজ গালিচা মোড়া পাহাড়ী ঢাল আর মাঝেমাঝে আঁকাবাঁকা পাহাড়ী পথ নিয়ে যায় কোঠিগাঁওয়ের পথে। চা বাগানকে নির্ভর করেই … বিস্তারিত

মৌসিনরাম, মেঘালয়

মৌসিনরাম

ভারতের মেঘালয় রাজ্যের পূর্ব খাসি পাহাড়ে অবস্থিত মৌসিনরাম (Mawsynram) পৃথিবীর সবচেয়ে আদ্র স্থান। মৌসিনরামে ৭০০ মিলিলিটার পর্যন্ত বৃষ্টিপাত হয়। যদিও শিলং এই জায়গা থেকে ৮০ কিমি দূরে যেখানে মাত্র ৯০ মিলিলিটার বৃষ্টিপাত হয়। একটা সময় চেরাপুঞ্জি সবচাইতে বেশি বৃষ্টিপাতের স্থান হলেও বর্তমানে সেই স্থানটি মৌসিনরামের দখলে। প্রকৃতির সাথে বৃষ্টিকে উপভোগ … বিস্তারিত