বার আউলিয়া মাজার, পঞ্চগড়

বার আউলিয়া মাজার

বার আউলিয়া মাজার শরীফ (Bara Aulia Shrine) পঞ্চগড় উপজেলা সদর হতে ৯ কি.মি. উত্তর-পূর্বে মির্জাপুর ইউনিয়নের বার আউলিয়া গ্রামের বিস্তীর্ণ ভূমিতে অবস্থিত। বার জন ওলী খাজা বাবার নির্দেশে চট্টগ্রামসহ পূর্ববঙ্গের বিভিন্ন অঞ্চলে আস্তানা গড়ে তুলে ইসলাম প্রচার শুরু করেন, পরে স্থল পথে রওনা হয়ে ইসলাম প্রচার করতে করতে … বিস্তারিত

বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট

বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট

বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট (Banglabandha Zero Point) বাংলাদেশের উত্তরের উপজেলা তেঁতুলিয়া এর সীমান্তবর্তী ল্যান্ডমার্ক। এর পরে ভারতের বর্ডার শুরু হয়েছে। এই স্থানে মহানন্দা নদীর তীর ও ভারতের সীমান্ত সংলগ্ন প্রায় ১০ একর জমিতে ১৯৯৭ সালে নির্মিত হয় বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর যেখান থেকে নেপালের সাথেও বাংলাদেশের পণ্য বিনিময় সম্পাদিত হয়। হিমালয়ের কোলঘেঁষে অবস্থিত বাংলাদেশের সর্বোত্তরের স্থান … বিস্তারিত

বোদেশ্বরী মন্দির

বোদেশ্বরী মন্দির

বোদেশ্বরী মন্দির (Bodeshshori Mondir) পঞ্চগড় জেলার প্রাচীন প্রত্নতত্ত্বগুলোর মধ্যে ঐতিহাসিক একটি মন্দির। প্রাচীন এ মন্দিরটির অবস্থান পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার বড়শশী ইউনিয়নের বোদেশ্বরী গ্রামে। পঞ্চগড় জেলার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া করতোয়া নদীর তীর ঘেঁষে নির্মিত বোদেশ্বরী মন্দিরটি দূর থেকে মসজিদ বলে ভুল হতে পারে যে কারুরই। ৩৫ ফুট দীর্ঘ এবং … বিস্তারিত

রকস মিউজিয়াম, পঞ্চগড়

রকস মিউজিয়াম

রকস মিউজিয়াম (Rocks Museum) পঞ্চগড় সদরে গড়ে তোলা পঞ্চগড় সরকারি মহিলা কলেজে অবস্থিত একমাত্র পাথুরে জাদুঘর। ১৯৯৭ সালে উক্ত কলেজের তৎকালীন অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মো. নামজুল হক একক প্রচেষ্টায় ব্যক্তিগত উদ্যোগে ১৯৯৭ সালে গড়ে তোলেন এই রকস মিউজিয়াম। এই জাদুঘরে পঞ্চগড় জেলার প্রত্নতাত্ত্বিক ও লোকজ সংগ্রহ রয়েছে প্রায় ১,০০০ (এক হাজার) সংখ্যক এরও বেশি। … বিস্তারিত

তেঁতুলিয়া ডাক বাংলো

তেঁতুলিয়া ডাক বাংলো (Tetulia Dak Banglaw) আদতে পঞ্চগড়ের তেতুলিয়ায় অবস্থিত একটি রেস্ট হাউজ যা তাঁর ইতিহাস, ঐতিহ্য এবং ডাকবাংলোর বারান্দা, ছাদ থেকে কাঞ্চঞ্জঙ্ঘার অসাধারন ভিউ এর জন্যে খ্যাতি লাভ করেছে। ঐতিহাসিক এই ডাক বাংলোর নির্মাণ কৌশল অনেকটা ভিক্টোরিয়ান ধাচের। জানা যায়, এটি নির্মাণ করেছিলেন কুচবিহারের রাজা। তেঁতুলিয়া ডাক-বাংলোর পাশাপাশি এখানে নির্মান করা হয়েছে … বিস্তারিত

কাজী এন্ড কাজী টি স্টেট, তেতুলিয়া

কাজী এন্ড কাজী টি স্টেট, তেতুলিয়া

কাজী এন্ড কাজী টি স্টেট ( Kazi & Kazi Tea Estate Limited ), পঞ্চগড় জেলার তেতুলিয়া উপজেলার রওশনপুর নামক গ্রামে অবস্থিত। শহর থেকে কাজী টি এস্টেট এর দূরত্ব আনুমানিক ৫৫ কিলোমিটার। প্রকৃতি আর আধুনিকতা যখন মিশে যায় তখন এক আদি আর অকৃত্রিম নৈসর্গিক পরিবেশের … বিস্তারিত

Tetulia Tea Garden, Panchagarh (তেতুলিয়া চা বাগান, পঞ্চগড়)

তেতুলিয়া চা বাগান

চা বাগানের কথা উঠলেই মনে হয় সিলেট বা শ্রীমঙ্গলের কথা। উচু নিচু সবুজে ঘেরা টিলা আর পাহাড় তার গাঁয়ে সারি সারি চা গাছ। কিন্তু সমতল ভূমিতেও যে চা বাগান হতে পারে তা পঞ্চগড় না এলে বোঝা যাবে না। দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে গড়ে … বিস্তারিত

Mirzapur Shahi Jamei Mosque (মির্জাপুর শাহী মসজিদ)

মির্জাপুর শাহী মসজিদ

আটোয়ারী উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামে মির্জাপুর শাহী মসজিদটি অবস্থিত। ধারণা করা হয় ১৬৭৯ খ্রিষ্টাব্দে নির্মিত ঢাকা হাইকোর্ট প্রাঙ্গণে অবস্থিত মসজিদের সাথে মির্জাপুর শাহী মসজিদের নির্মাণ শৈলীর সাদৃশ্য রয়েছে। এর ফলশ্রুতিতে অনেকেই মনে করেন যে ঢাকা হাইকোর্ট প্রাঙ্গনে অবস্থিত মসজিদের সমসাময়িক কালে এ মির্জাপুর শাহী … বিস্তারিত

পঞ্চগড় থেকেই কাঞ্চনজঙ্ঘা

পঞ্চগড় থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘা

পঞ্চগড় (Panchagarh) হলো বাংলাদেশের সর্বউত্তরের জেলা যেখান থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘা (Kangchenjunga) দেখা যায়, যার তিন দিকেই ভারতের প্রায় ২৮৮ কিলোমিটার সীমানা-প্রাচীর দিয়ে ঘেরা। এর উত্তর দিকেই ভারতের দার্জিলিং জেলা। পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলা সদরে একটি ঐতিহাসিক ডাকবাংলো আছে। এর নির্মাণ কৌশল অনেকটা ভিক্টোরিয়ান ধাঁচের। জানা যায়, কুচবিহারের রাজা এটি নির্মাণ করেছিলেন। ডাকবাংলোটি জেলা পরিষদ পরিচালনা করে। এর … বিস্তারিত