মহেশখালী, কক্সবাজার

মহেশখালী

মহেশখালী (Moheshkhali) উপজেলা কক্সবাজার জেলার একটি পাহাড়ি দ্বীপ যা কক্সবাজার শহর থেকে মাত্র ১২ কিলোমিটার পশ্চিমে সাগরের মাঝে অবস্থিত। মহেশখালী উপজেলায় সোনাদিয়া, মাতারবাড়ি, ধলঘাটা নামে ৩টি দ্বীপ রয়েছে। পান, মাছ, শুটকি, চিংড়ি, লবণ ও মুক্তার উৎপাদনে সুনাম রয়েছে এর। মহেশখালী এর দর্শনীয় স্থানগুলো মহেশখালী ১ … বিস্তারিত

বিবি মসজিদ, রাউজান

সাহেব বিবি মসজিদ, রাউজান

৫০০ বছরের পুরনো ঐতিহ্যবাহী সাহেব বিবি মসজিদ (Shah Bibi Mosque) যা চট্টগ্রাম এর রাউজান উপজেলায় অবস্থিত। এই মসজিদের অবস্থান রাউজান উপজেলার ৯ নং ওয়ার্ড এর হাড়ি মিয়া চৌধুরী বাড়িতে। প্রায় ৫০০ বছর পূর্বে মোগল আমলে বিদেশী কারিগর দিয়ে চুন সুরকির গাঁথুনিতে নির্মাণ করা হয় এই স্থাপত্য। এটি ৮ টি পিলার,৩ টি … বিস্তারিত

কালাপাহাড়, কুলাউড়া, মৌলভীবাজার

কালাপাহাড়

কুলাউড়া পাহাড় বাংলাদেশের মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার কার্মধা ইউনিয়নের বেগুণছড়া পুঞ্জিতে অবস্থিত একটি পাহাড় যার উচ্চতা ১০৯৮ ফুট। কালাপাহাড় সিলেট বিভাগের সর্বোচ্চ পাহাড়চূড়া। এটা মূলত খাসিয়াদের গ্রাম। খাসিয়ারা গ্রামকে “পুঞ্জি” বলে। এর এক পাশে কুলাউড়া, অন্য পাশে জুড়ি উপজেলা ও ভারত সীমান্ত। এখানে আরো অনেক পুঞ্জি আছে। তাছাড়া এখানে … বিস্তারিত

জমিদার বাড়ি, নন্দীরহাট

জমিদার বাড়ি, নন্দীরহাট

জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত বরেণ্য সংগীতশিল্পী, সুরকার, গীতিকার ও পরিচালক সত্য সাহা এই জমিদারবাড়ির সন্তান। এই জমিদারি বংশে সত্য সাহার জন্ম হয় ১৯৩৪ সালে। জমিদার লক্ষীচরণ সাহার এই বাড়িটি নির্মাণ হয় ১৮৯০ সালে। উনি এবং উনার অপর ২ ভাই মিলে ওই এলাকায় জমিদারি সূচনা করেন। এরপর জমিদারি প্রথা … বিস্তারিত

তেওতা জমিদার বাড়ি

তেওতা জমিদার বাড়ি

তেওতা জমিদার বাড়ি (Teota Zamindar Bari) বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম ও তাঁর প্রিয়তমা স্ত্রী প্রমীলা দেবীর স্মৃতি বিজড়িত একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান। মানিকগঞ্জ এর (Manikganj) শিবালয় উপজেলার তেওতা জমিদার বাড়িতে কাজী নজরুল ইসলাম প্রমীলা দেবীর রূপে মুগ্ধ হয়ে লিখেছিলেন – “তুমি সুন্দর তাই চেয়ে থাকি প্রিয়সেকি মোর অপরাধ” কাজী নজরুল ইসলাম … বিস্তারিত

শর্শদি, ফেনী

শর্শদি

ফেনীতে অবস্থিত ফখরুদ্দীন মুবারক শাহ এর দ্বিতীয় রাজধানী শর্শদি। বাংলায় প্রথম স্বাধীন মুসলিম সালতানাতের প্রতিষ্ঠাতা ফখরুদ্দীন মুবারক শাহ। তিনি ১৩৩৮ থেকে ১৩৪৯ সাল বাংলার সুলতান ছিলেন। তাঁর রাজধানী ছিল সোনারগাঁও। বৃহত্তর কুমিল্লা, নোয়াখালী, সিলেট ও চট্টগ্রাম এর পর ত্রিপুরা ও আরাকান রাজ্য জয়ের পর এতদঞ্চলে দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিষ্ঠার প্রয়োজন … বিস্তারিত

ঝরঝরি ট্রেইল

ঝরঝরি ট্রেইল

সীতাকুণ্ড, মীরসরাই এর জনপ্রিয় ট্যুরিস্ট স্পট বলতে চন্দ্রনাথ পাহাড়, খৈয়াছড়া ঝর্ণা, নাপিত্তাছড়া ট্রেইল, কমলদহ ঝর্ণা প্রভৃতি। এইগুলোর বাহিরেও আরো বেশ কিছু ঝর্ণা, ট্রেইল রয়েছে যা খুব একটা পরিচিতি পায় নি, তেমনি একটা ট্রেইল হলো ঝরঝরি ট্রেইল। অবস্থান – পন্থিশীলা, সীতাকুন্ড, চট্রগ্রাম। কিভাবে যাবেন ঢাকা … বিস্তারিত

চর বিজয়

চর বিজয়

কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত এর গঙ্গামতী থেকে দক্ষিণ-পূর্ব কোণে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূরে গভীর সাগরে জেগে উঠেছে চর বিজয় (Chor Bijoy) নামের মনোমুগ্ধকর এক দ্বীপ। দ্বীপটির আয়তন আনুমানিক ৫ হাজার একর। লাল কাঁকড়া আর হাজারো অতিথি পাখির বিচরণে আকাশ আর চর মিলে একাকার হয়ে থাকে। বছর পাঁচেক আগে থেকে চরটি দৃশ্যমান হতে থাকে। … বিস্তারিত

পালং খিয়াং ঝর্ণা

পালং খিয়াং ঝর্ণা

পালং খিয়াং (Palong Khiyang) ঝর্ণাটি বান্দরবন জেলার আলীকদম উপজেলায় অবস্থিত। তবে দুর্গমতার কারণে খুব বেশী পর্যটক সেখানে পৌঁছাতে পারে নি। তৈনখালের পাথুরে রাস্তা দিয়ে, কখনো-বা উঁচু পাহাড় ডিঙ্গিয়ে পালং খিয়াং ঝর্ণায় যেতে হয়। তবে ঝর্ণায় যাওয়ার পথে তৈনখালের যে নৈসর্গিক রূপ তাও পর্যটকগণের নিকট আকষর্ণের কেন্দ্রবিন্দু। তৈনখালের বাঁকে বাঁকে নাতিদীর্ঘ পাহাড় চূঁড়ায় মুরুং, ত্রিপুরা, মার্মাদের … বিস্তারিত

কদম রসুল দরগা

কদম রসুল দরগাহ

নারায়ণগঞ্জ শহরের বিপরীত দিকে শীতলক্ষ্যা নদীর পূর্ব পাড়ে নবীগঞ্জে অবস্থিত কদম রসুল দরগাহ। চমৎকার এই দরগাহটিতে রয়েছে আশ্চর্য একটি জিনিস। কথিত আছে এখানে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) এর কদম মোবারকের ছাপ সংবলিত একটি পাথর রয়েছে। এর জন্যই দরগাহ এর নামকরণ হয়েছে কদম … বিস্তারিত

হর্টিকালচার পার্ক

হর্টিকালচার পার্ক

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, পাহাড় আর ঝর্ণায় সমৃদ্ধ খাগড়াছড়ি জেলায় অবস্থিত হর্টিকালচার পার্ক (Horticulture Park) খুব জনপ্রিয় একটি পার্ক। জেলা শহরের জিরোমাইল এলাকায় ২২ একর পাহাড় জুড়ে নির্মাণ করা হয়েছে এই হর্টিকালচার হ্যারিটেজ পার্ক। এই পার্কে রয়েছে অসাধারণ সুন্দর একটি ঝুলন্ত ব্রিজ এবং বড় একটি সুইমিং পুল। হর্টিকালচার পার্ক এর ভিতরের পরিবেশ বেশ মনোরম। … বিস্তারিত

দেবতাখুম

দেবতাখুম

নৈসর্গীক বান্দরবানকে বলা হয় খুমের স্বর্গরাজ্য আর এই রাজ্যের শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট নিঃসন্দেহে দেবতাখুম (Debotakhum) এর কাছেই যাবে। স্থানীয়দের মতে প্রায় ৫০-৭০ ফুট গভীর এই খুমের দৈর্ঘ্য ৬০০ ফুট যা ভেলাখুম থেকে অনেক বড় এবং অনেক বেশী বন্য। দেবতাখুম যেতে হলে … বিস্তারিত