রামু রাবার বাগান

রামু রাবার বাগান

১৯৬০-৬১ সালে অনাবাদি জমি জরিপ করে গবেষণার মাধ্যমে রামুতে রাবার চাষাবাদ শুরু করা হয়। রামুর ঐতিহ্যবাহী এ রাবার বাগান আজ দেশের অন্যতম পর্যটন স্থান হিসেবে দখল করে নিয়েছে। বর্তমানে বাগানের বিস্তৃতি ২ হাজার ৬৮২ একর। এর মধ্যে ১ হাজার ১৩০ একর … বিস্তারিত

মিয়ার দালান

মিয়ার দালান

মিয়ার দালান বাংলাদেশের ঝিনাইদহ জেলার সদর থানার মুরারীদহে অবস্থিত একটি পুরানো জমিদার বাড়ি। এটি ঝিনাইদহের একটি দর্শণীয় স্থান যা অনেকের কাছে সলিমুল্যা চৌধুরীর বাড়ি নামেও পরিচিত। বাড়ীটি স্থানীয় নবগঙ্গা নদীর উত্তর দিকে অবস্থিত। ঝিনাইদহ শহরের প্রাণকেন্দ্র থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে এটি অবস্থিত। বর্তমানে বাড়িটি ভগ্নপ্রায়। প্রাচীন ঐতিহ্য অনুযায়ী ইমারতের প্রধান ফটকে নির্মাণ সময়ের কিছু … বিস্তারিত

ঢোল সমুদ্র দিঘী

ঢোল সমুদ্র দিঘী

ঢোলসমুদ্র দীঘিটি ঝিনাইদহের একটি আকর্ষণীয় বিনোদন স্থান। প্রায় ৫২ বিঘা জমির উপর অবস্থিত এ দীঘি ঝিনাইদহের সর্ববৃহৎ দীঘি। শহর থেকে ৪ কি.মি. পশ্চিমে অবস্থিত। দীঘিটি শতাব্দী পরিক্রমায় পানীয় জলের অফুরন্ত আধার হিসেবে কাজ করেছে এবং একজন পরাক্রমশালী রাজার রাজকীয় স্থাপনা সমূহের একটি স্মৃতি হিসেবে আজও … বিস্তারিত

চায়না বাঁধ, সিরাজগঞ্জ

চায়না বাঁধ

ভাবুন তো একবার, আপনি বসে আছেন সবুজ ঘাসের উপর, আর দুইপাশে নদী। না, এটা নদীর বুকে জেগে উঠা কোন চর নয়! জায়গাটার নাম চায়না বাঁধ, যা সিরাজগঞ্জ জেলায় অবস্থিত। অসাধারণ একটা বিকেল কাটাতে চাইলে ঘুরে আসতে পারেন সিরাজগঞ্জের চায়না বাঁধ থেকে। ক্রসবার ৩ ও বলা হয় অবশ্য। সিরাজগঞ্জ শহরের সাথেই এই চায়না বাঁধ। বাংলাদেশ পানি … বিস্তারিত

মেধস মুনির আশ্রম

মেধস মুনির আশ্রম

প্রকৃতির সান্নিধ্যে নিরিবিলি পরিবেশে কিছুটা সময় কাটাতে চাইলে যেতে পারেন – মেধস মুনির আশ্রম এ। চন্দ্রনাথ এর মত মেধস মুনির আশ্রমও পাহাড়ের উপর অবস্থিত হিন্দুদের একটি জনপ্রিয় তীর্থ। মার্কেন্ডয় পুরান, শ্রীশ্রীচণ্ডী বা দেবীমাহাত্ম্যম বা দেবীভাগবত পূরণে উল্লেখ রয়েছে ঋষি মেধসের এই … বিস্তারিত

শুকতারা রিসোর্ট

শুকতারা প্রকৃতি নিবাস

সিলেটের খাদিমনগর জাতীয় উদ্যান এর টিলার চূড়ায় শুকতারা প্রকৃতি নিবাস এর অবস্থান। সিলেট শহর থেকে সাড়ে ৭ কিলোমিটার দূরে শুকতারা রিসোর্টের অবস্থান । শাহপরাণ (রহ.) – এর মাজার গেট থেকে একটু এগিয়ে বামে মোড় নিয়ে মিনিট ২ এগোলেই মিলবে কাঙ্ক্ষিত শুকতারা। ১৪ একর জায়গাজুড়ে এই রিসোর্ট। শুকতারা রিসোর্ট … বিস্তারিত

গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকত

গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকত

গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকত (Guliakhali Sea Beach) চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুণ্ড উপজেলায় অবস্থিত। স্থানীয় মানুষের কাছে এই সৈকত মুরাদপুর বীচ নামে পরিচিত। সীতাকুণ্ড বাজার থেকে গুলিয়াখালি সি বীচের দূরত্ব মাত্র ৫ কিলোমিটার। অনিন্দ্য সুন্দর গুলিয়াখালি সী বিচ কে সাজাতে প্রকৃতি কোন কার্পন্য করেনি। একদিকে দিগন্তজোড়া সাগর জলরাশি আর অন্য দিকে কেওড়া বন এই … বিস্তারিত

কুসুম্বা মসজিদ

কুসুম্বা মসজিদ

পাঁচ টাকা নোটে অঙ্কিত সাড়ে চারশ’ বছরের অধিক কাল পূর্বে নির্মিত মসজিদ হল কুসুম্বা মসজিদ। মসজিদটি নওগাঁ জেলার মান্দা থানার কুসুম্বা গ্রামের একটি প্রাচীন মসজিদ। কুসুম্বা দিঘির পশ্চিম পাড়ে, পাথরের তৈরি ধুসর বর্ণের মসজিদটি অবস্থিত। মসজিদের প্রবেশদ্বারে বসানো ফলকে মসজিদের নির্মাণকাল লেখা রয়েছে হিজরি ৯৬৬ সাল (১৫৫৪-১৫৬০ খ্রিস্টাব্দ)। আফগানী শাসনামলের শুর বংশে … বিস্তারিত

চিলড্রেন্স পার্ক

চুকু লুপি চিলড্রেন্স পার্ক

চিলড্রেন্স পার্কটি বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী ভারতের মেঘালয় রাজ্যঘেঁষা শেরপুর জেলার গারো পাহাড় এলাকার গজনী অবকাশ কেন্দ্রে অবস্থিত। পাহাড়ে যাদের ঘুরতে ভালো লাগে, তাদের জন্য এটি সুখবরই বলা যায়। বন-বৃক্ষের ছায়াঘেরা নাম না জানা অসংখ্য পাখ-পাখালির কলতান, গারো, কোচ, হাজং, ডালু, বানাই সম্প্রদায়ের সংস্কৃতি বেষ্টিত পাহাড়ের গায়ে গড়ে ওঠা পার্কটি নির্মাণ করা হয়েছে আধুনিকতার ছোঁয়ায়। শেরপুরের শিল্প প্রতিষ্ঠান ভি-সাইন গ্রুপ … বিস্তারিত

মল্লিকপুর এর বটগাছ

মল্লিকপুর এর বটগাছ

এশিয়ার বৃহত্তম এবং প্রাচীন বটগাছটি কালীগঞ্জ শহর হতে ১০ কিলোমিটার পূর্বে মালিয়াট ইউনিয়নের বেথুলী মৌজায় অবস্থিত যা ঝিনাইদহ জেলা সদর হতে দুরত্ব ২৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। বটগাছটি বর্তমানে ১১ একর জমি জুড়ে বিদ্যমান। সুইতলা – মল্লিকপুর এর বটগাছ নামে এটি বিশেষভাবে পরিচিত। গাছটি দুইশো বছরের পুরনো। রাস্তার ধারে ডাল পাতায় পরিপূর্ণ … বিস্তারিত

গুরুদুয়ারা নানকশাহী

গুরুদুয়ারা নানকশাহী

ঢাকার গুরুদুয়ারা নানকশাহী বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরে অবস্থিত একটি শিখ ধর্মের উপাসনালয়। এটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর ক্যাম্পাসের কলাভবনের পাশে অবস্থিত। এই গুরুদুয়ারাটি বাংলাদেশে সবকটি গুরুদুয়ারার মধ্যে বৃহত্তম। কথিত আছে যে, ঢাকার এই গুরুদুয়ারাটি যেখানে অবস্থিত, সেই স্থানে ষোড়শ শতকে শিখ ধর্মের প্রবর্তক গুরু নানক অল্প সময়ের জন্য অবস্থান করেছিলেন। এই স্থানে থাকা কালে … বিস্তারিত

সাইরু হিল রিসোর্ট

সাইরু হিল রিসোর্ট

সৌন্দর্যের দিক থেকে প্রথম সারিতে থাকা একটি অনিন্দ্য সুন্দর আর মনোরম রিসোর্ট – সাইরু হিল রিসোর্ট। বান্দরবান শহর হতে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এটি। সাইরু রিসোর্ট সম্ভবত বান্দরবানের সবচেয়ে এক্সপেন্সিভ রিসোর্ট। তবে অসম্ভব রকম সুন্দর একটা জায়গা সাইরু। এটি দেখে মনপ্রাণ জুড়োবে বেরসিক … বিস্তারিত