গজনী অবকাশ কেন্দ্র

গজনী অবকাশ কেন্দ্র

গজনী অবকাশ কেন্দ্র (Ghazni Leisure Center) শেরপুর জেলা সদর থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে ভারতের মেঘালয় রাজ্যের পাদদেশে ঝিনাইগাতী উপজেলার গারো পাহাড়ের পাদদেশে গড়ে উঠেছে। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরূপ লীলাভূমি গজনী ব্রিটিশ আমল থেকেই পিকনিকট স্পট হিসেবে পরিচিত। মনোরম পাহাড়ি শোভামন্ডিত গজনী অবকাশ কেন্দ্রে একটি প্রাচীন বটগাছের পূর্বদিকে প্রায় ২ শত ফুট উঁচু পাহাড়ের চূড়ায় … বিস্তারিত

রাজার পাহাড়, শেরপুর

রাজার পাহাড়

রাজার পাহাড় (Raja Pahar) শেরপুর জেলার শ্রীবরদী পৌর শহর থেকে মাত্র ১৪ কিলোমিটার দূরে কর্নঝোরা বাজার সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত। গারো পাহাড়ে যতগুলো পাহাড় রয়েছে তার মধ্যে রাজার পাহাড়ের উচ্চতা সবচেয়ে বেশি। এ পাহাড়ের বৈশিষ্ট্য সিলেট বা বান্দরবানের পাহাড়ের মতো না হলেও, সবুজের ঐশ্বর্যে সে কারও চেয়ে কোন … বিস্তারিত

বনরাণী ফরেস্ট রিসোর্ট

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার গান্ধিগাঁও এ নির্মিত হয়েছে আধুনিক পর্যটন স্থাপনা বনরাণী ফরেষ্ট রিসোর্ট (Bonorani Forest Resort) যা প্রাইভেট পিকনিক স্পট হিসেবে ভাড়া দেয়া শুরু হয়েছে। উল্লেখ্য এই রিসোর্ট থেকে গজনী অবকাশের দূরত্ব হাটাপথে ১০/১২ মিনিট। খাবারের জন্য বিভিন্ন উচ্চতায় স্থাপিত ৯টি প্লাটফর্ম, দোতলায় ১টি থেকে ৩ টি রুম (বুকিং অনুযায়ী), নীচে … বিস্তারিত

চুকু লুপি চিলড্রেন্স পার্ক

চুকু লুপি চিলড্রেন্স পার্ক

চুকু লুপি চিলড্রেন্স পার্কটি (Sherpur Chuku Loopie Children’s Park) বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী ভারতের মেঘালয় রাজ্যঘেঁষা শেরপুর জেলার গারো পাহাড় এলাকার গজনী অবকাশ কেন্দ্রে অবস্থিত। পাহাড়ে যাদের ঘুরতে ভালো লাগে, তাদের জন্য এটি সুখবরই বলা যায়। বন-বৃক্ষের ছায়াঘেরা নাম না জানা অসংখ্য পাখ-পাখালির কলতান, গারো, কোচ, হাজং, ডালু, বানাই … বিস্তারিত

মধুটিলা ইকোপার্ক, শেরপুর

মধুটিলা ইকোপার্ক

বৃহত্তর ময়মনসিংহের শেরপুর (Sherpur) জেলা শহর থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরত্বে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের নালিতাবাড়ী উপজেলাধীন এবং ময়মনসিংহ বন বিভাগ নিয়ন্ত্রিত মধুটিলা রেঞ্জের সমেশচূড়া বিটের প্রায় একশ হেক্টর পাহাড়ি বনভূমি নিয়ে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের অধীনে সম্পূর্ণ সরকারি অর্থায়নে মধুটিলা ইকোপার্ক (Modhutila Echo Park)। আধুনিক সুবিধাসমৃদ্ধ মধুটিলা ইকোপার্কটি দেশি-বিদেশি পর্যটকদের আকৃষ্ট করার মাধ্যমে সৌন্দর্যপিপাসু লোকজনের জন্য বিনোদনের … বিস্তারিত