চর আলেকজান্ডার

চর আলেকজান্ডার

নোয়াখালী এর সোনাপুর সদর থেকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত আলেকজান্ডার চর। একসময় শুধু চর বলেই পরিচিত ছিল এটি। তবে যান্ত্রিক জীবনের সঙ্গে প্রতিনিয়ত লড়াই করা মানুষগুলোর ভ্রমণ পিপাসা মেটাতে এটি এখন আপাদমস্তক পর্যটনকেন্দ্রই বলা চলে। চারদিকে সবুজ বিস্তৃত মাঠ। মানুষের কোলাহল নেই বললেই চলে। একটু … বিস্তারিত

কুমারীকুন্ড

কুমারীকুন্ড

পৌরাণিক এক অঞ্চল সীতাকুন্ড। পাহাড়ের এদিকে সেদিক শত শত ছড়া। একেকটা ছড়ায় একেক বিস্ময় লুকিয়ে রাখা। তেমনি এক ছড়ায় খুঁজে পাওয়া গেলো রহস্যময় এক প্রাচীন মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ, কুমারীকুন্ড। সম্ভবত প্রাচীন হিন্দুরা হট স্প্রিং বা উষ্ণ প্রস্রবণকে পবিত্র ভাবতেন। সীতাকুন্ডের প্রসিদ্ধ লবণাক্ষকুন্ড … বিস্তারিত

দিবর দীঘি

দিবর দীঘি

দিবর স্তম্ভ বা দিব্যক জয় স্তম্ভ বাংলাদেশের নওগাঁ জেলার পত্নীতলা থানার দিবর দীঘি এর মধ্যস্থলে অবস্থিত একটি ঐতিহাসিক নিদর্শন। এ দীঘি স্থানীয় জনগনের কাছে কর্মকারের জলাশয় নামে পরিচিত। দীঘিটি ৪০/৫০ বিঘা বা ১/২ বর্গ মাইল জমির উপর অবস্থিত। দিবর দীঘি এর মধ্যখানে দিবর স্তম্ভ অবস্থিত যা আটকোণ বিশিষ্ট গ্রানাইট পাথর। এ স্তম্ভের সর্বমোট উচ্চতা ৩১ ফুট … বিস্তারিত

বাওথার, উত্তরখান

বাওথার, উত্তরখান

ঢাকা শহরের যান্ত্রিক জীবন যাপনে যখন হাঁপিয়ে উঠে মন-প্রাণ, তখনই মন খোঁজে একটু নির্মল বাতাস, খোলা আকাশ, শান্ত একটি পরিবেশ। আর এই শান্তির খোঁজ বর্তমানে জনপ্রিয় করে তুলেছে ঢাকার উত্তরখান এর বাওথারকে। শহরেই যেন গ্রামের প্রশান্তি নেমে এসেছে এখানে। নদীতে সাঁতার কাটা, নৌকায় চড়া, আশেপাশে ঘুরে বেড়ানোর জন্য চমৎকার … বিস্তারিত

বাওয়াছড়া লেক

বাওয়াছড়া লেক

বাওয়াছড়া লেকটি মিরসরাই এর ওয়াহেদপুর গ্রামের বারমাসি ছড়ার মুখে অবস্থিত বলে লেকটির নামকরণ করা হয়েছে বাওয়াছড়া লেক। মিরসরাই উপজেলার ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের ছোটকমলদহ বাজারের দক্ষিণ পাশে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দেড় কিলোমিটার পূর্বে লেকের অবস্থান। এর মধ্যে সামান্য পথ ছাড়া বাকি পথ গাড়িতে যাওয়া যায়। টলটলে শান্ত পানির চুপচাপ বয়ে চলার ধরনই … বিস্তারিত

প্রান্তিক লেক, বান্দরবান

প্রান্তিক লেক

প্রায় ২৫ একর জায়গা জুড়ে সৃষ্ট কৃত্রিম জলাশয় প্রান্তিক লেক। প্রান্তিক লেক এর আয়তন ২৫ একর হলেও পুরো কমপ্লেক্সটি আরো অনেক বড়। ৬৮ একর এলাকা জুড়ে পাহাড় বেষ্টিত ২৫ একরের বিশাল লেক যা বগা লেক এর থেকেও বড়। জেলার এক প্রান্তে অবস্থিত বলে এই লেকের … বিস্তারিত

সায়রা গার্ডেন রিসোর্ট

সায়রা গার্ডেন রিসোর্ট

নারায়ণগঞ্জ জেলার মদনপুরের নাজিম উদ্দিন ভূইয়া কলেজের বিপরীতে নিরিবিলি পরিবেশে গড়ে উঠেছে বিলাসবহুল সায়রা গার্ডেন রিসোর্ট। ঢাকা থেকে মাত্র ২২ কিলোমিটার দূরের এই রিসোর্টটি ইতিমধ্যে নারায়ণগঞ্জ ও আশপাশের এলাকার ভ্রমণপিপাসুদের কাছে সাড়া জাগিয়েছে। কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনির মধ্যে এ বিনোদন কেন্দ্রটিতে বিশাল পুকুরের এক পাশে রয়েছে ছোট ছোট কটেজ, আছে … বিস্তারিত

মেঘনা ভিলেজ হলিডে রিসোর্ট

মেঘনা ভিলেজ হলিডে রিসোর্ট

ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কে নারায়নগঞ্জ পার হওয়ার পর এক কিলোমিটারের মধ্যে রাস্তার ডান পাশে (ঢাকা থেকে গেলে) ৩০ বিঘা জমির উপর ফুল ফল বৃক্ষশোভিত এক অন্যন্য বিনোদন কেন্দ্র মেঘনা ভিলেজ হলিডে রিসোর্ট। মেঘনা ব্রিজ পার হওয়ার পরই দেখা পাবেন রাস্তার পাশে। প্রথমে দেখতে পাবেন কয়েকটি হাতি, বাঘ ও … বিস্তারিত

পাথারিয়া পাহাড়

পাথারিয়া পাহাড়

পাথারিয়া পাহাড় মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলায় অবস্থিত, যার পূর্ব নাম আদম আইল। এই পাহাড়ের উপর থেকে পতিত পানিতেই সৃষ্টি হয়েছে মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত। এই পাহাড়, সিলেট সদর থেকে ৭২ কিলোমিটার, মৌলভীবাজার জেলা থেকে ৭০ কিলোমিটার, কুলাউড়া রেলওয়ে জংশন থেকে ৩২ কিলোমিটার … বিস্তারিত

মারায়ন ডং

মারায়ন ডং

বান্দরবানের আলিকদমে অবস্থিত মিরিঞ্জা রেঞ্জের একটি পাহাড় মারায়ন ডং তবে স্থানীয়রা মারায়ন তং নামেও ডেকে থাকে। উচ্চতা প্রায় ১৬৪০ ফিট। পাহাড়ের একেবারে চূড়ায় রয়েছে এক বৌদ্ধ উপাসনালয়। চারদিকে খোলা ও ওপরের দিকে চালা। এতে আছে বুদ্ধের এক বিশাল মূর্তি। দর্শনীয় স্থান হিসেবেও জায়গাটা চমৎকার। ওপরের অংশটুকু সমতল। এখান থেকে যত দূর দৃষ্টি যায় শুধু পাহাড় আর … বিস্তারিত

কংদুক বা যোগী হাফং, বান্দরবান

কংদুক বা যোগী হাফং

ঠিক বান্দরবান-মিয়ানমার বর্ডার এ কংদুক বা যোগীহাফং এর অবস্থান। পাহাড় প্রেমীদের কাছে যোগী হাফং পরিচিত একটি নাম। যোগী হাফং বা কংদুক ৪র্থ সর্ব্বোচ্চ পাহাড়। কংদুক বা যোগীহাফং এর উচ্চতা ৯৮৩ মিটার বা ৩২২২ ফুট। বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্তে বেশ দুর্গম অঞ্চলে অবস্থিত মোদক রেঞ্জের অন্তর্ভুক্ত এই পাহাড়টি। বাংলাদেশের মধ্যে মোদক রেঞ্জের পাহাড়গুলোর উচ্চতাই সবচেয়ে … বিস্তারিত

সাতুরিয়া জমিদার বাড়ি

সাতুরিয়া জমিদার বাড়ি

বরিশাল বিভাগের ঝালকাঠী জেলার রাজাপুর-পিরোজপুর মহাসড়কের বেকুটিয়া ফেরিঘাটের কাছাকাছি অবস্থিত সাতুরিয়া গ্রামে সাতুরিয়া জমিদার বাড়ি এর অবস্থান। এটি সাতুরিয়ার জমিদার পরিবারের প্রতিষ্ঠাতা ও ইসলামি সাধু পুরুষ শেখ শাহাবুদ্দিনের প্রতিষ্ঠিত বাড়ি। প্রায় সাড়ে ৩শ’ বছর আগে এ বাড়িটি নির্মিত হয়। প্রায় একশ’ একর জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত জমিদার বাড়িতে রয়েছে অনেকগুলো পুকুর, ফুলের বাগান, তিনটি পুরনো কারুকার্যখচিত মুঘল আদলের … বিস্তারিত