দার্জিলিং বেড়াতে গেলে যে ৯ জায়গায় খেতে ভুলবেন না

যুক্ত করা হয়েছে
ভালো লেগেছে
0

দার্জিলিং‌ যাওয়ার পরিকল্পনা করেছেন? দার্জিলিং শুধু বেড়ানোর জায়গা নয়। খাদ্যরসিকদের জন্য দার্জিলিং‌ খুব ভালো জায়গা। ওখানের খাবারে পেটের সঙ্গে মনও ভরে যায়।

Darjeeling Food, Momo
মম

কেভেন্টার্সঃ আলাদা করে কিছু বলার নেই। কফি, হট চকোলেট তো খাবেনই। সঙ্গে নিন এদের বিখ্যাত সসেজ-সালামির প্লেট। চিকেন বা পর্ক, যেটা খুশি। বাজি ফেলে বলা যায়, এমন স্বাদ চট করে কোথাও পাবেন না। এখানে কোনো খাবারই ২৫০ টাকার বেশি নয়।

কুংগাঃ কেভেন্টার্সের কোণাকুনি উল্টোদিকে কুংগা রেস্তোরা। আয়তনে ছোট্ট। কিন্তু, সাজানো-গোছানো ব্যাপারটা বেশ নজর কাড়বে। এখানকার টিবেটান ফুড একবার চেখে দেখুন। কচি বাঁশের শিকড় দিয়ে চিকেনের প্রিপারেশন! ভাবা যায়! মোটামুটি ৫০০ টাকায় ভরপেট খাওয়া হয়ে যাবে দুজনের।

গ্লেনারিজঃ ম্যালে উঠতেই বাঁ-হাতে পড়বে এ বেকারি। কেক-পেস্ট্রির এমন স্বাদ সাধারণত জিভে পড়ে না। দু’জনের স্ন্যাকস-এর খরচ কমবেশি ২০০ টাকা।

জোয়েস পাবঃ ১৯৪৮ থেকে চলে আসছে। এই ছোট্ট পাবে মিলবে ব্রিটিশ আমলের মেজাজ। এখানে দুদণ্ড বসে দু’পেগ পছন্দের পানীয়ের সঙ্গে অনবদ্য সাইড ডিশ। পানীয় এবং আহার মিলিয়ে দু’জনের আনুমানিক খরচ ১,২০০ টাকা।

হেস্টি-টেস্টিঃ যাঁরা নিরামিষ পছন্দ করেন, তাদের জন্য রইল এ ঠিকানা। দক্ষিণ ভারতীয় থেকে শুরু করে উত্তর, সবরকম খাবার পাওয়া যায়। দু’জনের লাঞ্চে আনুমানিক খরচ ৩০০ টাকা।

টয়ট্রেনের লাইনের ধারে ছোট্ট দোকানঃ চলে আসুন একবার। ছোট্ট দোকানে গরম, ধোঁয়া ওঠা ন্যুড্‌লস স্যুপে চিকেন বা সবজি। একবার চেখে দেখলে সহজে ভুলবেন না। আনুমানিক খরচ দু’জনের ১০০ টাকা।

শহরে রাস্তার ধারের দোকানঃ এখানে খেতে হবে মোমো। ঘরে তৈরি স্টিম্‌ড চিকেন মোমোর স্বাদ ভোলার নয়। বড় দোকানও হার মানবে। দু’জনের আনুমানিক খরচ ৫০ টাকা।

মিরিক রোডঃ মিরিক যাওয়ার পথে পশুপতি মার্কেটের কাছে ছোট্ট চায়ের দোকানে বসে ভেজ পকোড়া বা টিকিয়া এবং চা। দু’জনের আনুমানিক খরচ ৫০ টাকা।

ম্যাল রোডঃ ম্যাল রোড ধরে মহাকাল মন্দিরের গা ঘেঁষে নিরিবিলি পথে মেঘ-কুয়াশা চিরে এগিয়ে যান। রাস্তা যেখানে বাঁ-দিকে বাঁক নিয়েছে, সেখানে পাবেন চা এবং মুড়ি (সঙ্গে আলু-মটরের ঝোল-ঝোল লালচে তরকারি)। এটা মিস করবেন না। পথের ধারে বসে থাকা বৃদ্ধার হাতে এটা খেয়ে দেখুন। দু’জনের আনুমানিক খরচ ৩০ টাকা।

ঘুরতে যেয়ে পদচিহ্ন ছাড়া কিছু ফেলে আসবো না,
ছবি আর স্মৃতি ছাড়া কিছু নিয়ে আসবো না।।