কক্সবাজার ভ্রমণের খুঁটিনাটি এবং কিছু প্রয়োজনীয় টিপস

যুক্ত করা হয়েছে
ভালো লেগেছে
0

বাংলাদেশের ভিতরে ভ্রমনের চিন্তা মাথায় এলেই সবার প্রথমে অবশ্যই কক্সবাজারের কথা আসবে মাথাতে। শুধু দেশীয় পর্যটক না, দেশের বাইরে থেকেও প্রতিবছর প্রচুর পর্যটক বিশ্বের সবচাইতে বৃহৎ এই সমুদ্র সৈকত দেখতে আসেন। শ্রাবণের মুখর বাদল দিন এসে গেছে। বৃষ্টিতে ভিজতে ভিজতে সাগর দেখেছেন? এ অন্য রকম সৌন্দর্য। ভিন্ন রকম মজা। এই আনন্দটুকু উপভোগ করতে এই চলে যেতে পারেন পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্রসৈকত কক্সবাজারে। কক্সবাজারকে বাংলার পর্যটন রাজধানী বললে মোটেও ভুল হবেনা। প্রতিবছর যে পরিমাণ পর্যটক কক্সবাজার (Cox’s Bazar) ভ্রমণ করেন, তা বাংলাদেশের মোট পর্যটকের ২ তৃতীয়াংশ।

কিভাবে যাবেন এবং কি পরিমান খরচ হবে

ঢাকা-কক্সবাজার পথে প্রতিদিন অসংখ্য গাড়ি চলাচল করে। নন-এসিতে জনপ্রতি টিকিটের মূল্য ৮০০ টাকা। এসি-ইকোনমি ক্লাসে ভ্রমণে খরচ জনপ্রতি ১৬০০ টাকা। আর এসি-বিজনেস ক্লাসে যেতে লাগবে জনপ্রতি ২০০০ টাকা। ১০ থেকে ১২ ঘণ্টায় গন্তব্যে পৌঁছানো যায়।

অথবা আপনি চাইলে বিমানে যেতে পারেন। ঢাকা থেকে ডমেস্টিক ফ্লাইটে কক্সবাজার যেতে পারবেন।

প্রয়োজনীয় কিছু টিপস

  • সমুদ্রে নামার আগে সতর্ক থাকবেন এবং অবশ্যই জোয়ার-ভাটার সময় জেনে নিন।
  • ভাটার সময়ে সমুদ্রে স্নান বিপজ্জনক ভাটার টানে মুহূর্তেই হারিয়ে যেতে পারে যে কেউ।
  • বিচ ফটোগ্রাফি: ছবি তোলার আগে লাল পোশাক পরা এসব বিচ ফটোগ্রাফারদের আইডি কার্ড যাচাই করে নিন। এদের প্রত্যেকের রয়েছে একটি করে আইডি কার্ড।
  • স্পিডবোট: বিচে বেশ কয়েকটি স্পিডবোট চলে। মেইন বিচ থেকে এগুলো চলাচল করে লাবণী পয়েন্ট পর্যন্ত।
  • বিচ বাইক এর ও মজা নিতে পারেন। তিন চাকার বেশ কয়েকটি বিচে চলার উপযোগী বাইক কক্সবাজার সাগর সৈকতে চলাচল করে।

কক্সবাজারের দর্শনীয় স্থানসমূহ যা ভুল করেও মিস করা যাবে না

কক্সবাজারের দর্শনীয় স্থানসমূহের একটা লিস্ট শেয়ার করছি আপনাদের সাথে। এই সব জায়গা থেকে ঘুরে আসতে ভুলবেন না যেনঃ

হিমছড়ি
ইনানী সমুদ্র সৈকত
✿ মহেশখালী দ্বীপ
সোনাদিয়া দ্বীপ
কুতুবদিয়া
✿ টেকনাফ
সেন্টমার্টিন দ্বীপ
ছেড়াদ্বীপ

কি কি জিনিস এড়িয়ে চলবেন কক্সবাজারে

☠ এলকোহল পান করবেন না কক্সবাজারে।
☠ রাতের বেলা কক্সবাজার অনেক নির্জন থাকে। তাই রাতে চলে ফেরা না করে ভালো। Mugging, stealing and harassment হাত থেকে সাবধানে থাকুন।
☠ কক্সবাজারে একটি জনপ্রিয় জায়গা। একে সুন্দর করে রাখা আমাদের দায়িত্ব। তাই পরিবেশ দূষণ থেকে বিরত থাকুন।

×

করোনা (COVID-19) ভাইরাস থেকে সতর্ক থাকতে যা করনীয়ঃ

  • সবসময় হাত পরিষ্কার রাখুন। সাবান দিয়ে অন্তত পক্ষে ২০ সেকেন্ড যাবত হাত ধুতে হবে।
  • সাবান না থাকলে হেক্সিসল ব্যবহার করুন। হেক্সিসল না থাকলে হ্যান্ড সেনিটাইজার ব্যবহার করুন।
  • আক্রান্ত ব্যক্তি থেকে দূরে থাকুন, যতটুকু সম্ভব ভীড় এড়িয়ে চলুন।
  • বাজারে কিছু স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকুন, করলে হাত সাবান দিয়ে ধুয়ে নিন।
  • টাকা গোনা ও লেনদেনের পর হাত সাবান দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।
  • ওভার ব্রিজ ও সিড়ির রেলিং ধরে ওঠা থেকে বিরত থাকুন।
  • পাবলিক প্লেসে দরজার হাতল, পানির কল স্পর্শ করতে টিস্যু ব্যবহার করুন।
  • হাত মেলানো, কোলাকুলি থেকে বিরত থাকুন।
  • নাক, মুখ ও চোখ চুলকানো থেকে বিরত থাকুন।
  • হাঁচি কাশির সময় কনুই ব্যবহার করুন।
  • আপনি যদি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত না হয়ে থাকেন তবে মাস্ক ব্যবহার আবশ্যক নয় তবে আক্রান্ত হলে সংক্রমণ না ছড়াতে নিজে মাস্ক ব্যবহার করুন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকুন। Stay Home, Stay Safe.

  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share