মাত্র ৯০০ টাকায় ঘুড়ে আসুন খৈয়াছড়া ঝর্ণা থেকে

যুক্ত করা হয়েছে
ভালো লেগেছে
3
ট্রিপ
১ দিন
খরচ
৯০০ টাকা
খৈয়াছড়া ঝর্ণা
খৈয়াছড়া ঝর্ণা

ঢাকার কমলাপুর / টিটিপাড়া থেকে ফেনী যাবার লাষ্ট বাসটা ধরবেন (স্টার লাইনের বাস হলে ভালো)। ১১:৪০ এ ছাড়ে। ভাড়া নিবে ২৭০ টাকা। ফেনীর মহীপালে আপনাকে ৪:৩০-৫ টায় নামায় দিবে। ওখনানে নেমে নাস্তা করুন (৫০ টাকা)। নাস্তা করে কিছুক্ষন ঘুরে দেখেন আশপাশ। ৬:০০-৬:২০ এর মধ্যে বাড়টাকিয়া যাবার লোকাল বাস পেয়ে যাবেন। ভাড়া ৫০ টাকা। ৭:৩০ এ বাড়টাকিয়া চলে যাবেন। ওখানে নেমে মেইনরোড ধরে ব্যাকওয়ার্ড এ ৫ মিনিট হাটলে খৈয়াছড়া যাবার রাস্তা পাবেন। ওখানে সিএনজি দাঁড়িয়ে থাকে। প্রতি জন ৩০ টাকায় আপনাকে খৈয়াছড়ার ঝিরিপথের মুখে নামিয়ে দেবে। নেমে ৪০ মিনিট হাটলে ৯ টার আগেই খৈয়াছড়ার প্রথম ধাপে পৌছে যাবেন। প্রথম ধাপ দেখে গোছল করে শেষ ধাপ পর্যন্ত হেসে খেলে সময় নিয়ে ঘুরে সিএনজি পার্কিং আসতে আপনাত সর্বচ্চো ১ টা বাজবে। সিএনজিতে ৩০ টাকায় বড়টাকিয়া চলে আসেন। ওখান থেকে ৫ টাকায় লেগুনাতে করে মিরসরাই চলে আসেন। মিরসরাই নেমে দুপুরের খাবার খেয়ে নিন (১০০ টাকা)। মিরসারাই থেকে হানিফ, ইউনিক, সোউদিয়া, শ্যামলী সব বাসের টিকেট পাবেন। ভাড়া ৩৫০ টাকা। ২:৫০ টার টিকেট করলে ৭ টার মধ্যে ঢাকায় থাকবেন আশা করি।

খরচঃ ২৭০+৫০+৫০+৩০+৩০+৫+১০০+৩৫০=৮৮৫ টাকা।

বি: দ্র: খাওয়ার খরচ আপনার নিজের উপর ডিপেন্ড করে। আর পাহাড়ে উঠার সময় রাস্তা অনেক পিচ্ছিল থাকে। ট্রেক স্যান্ডেল পরে যাওয়া ভালো।

×

করোনা (COVID-19) ভাইরাস থেকে সতর্ক থাকতে যা করনীয়ঃ

  • সবসময় হাত পরিষ্কার রাখুন। সাবান দিয়ে অন্তত পক্ষে ২০ সেকেন্ড যাবত হাত ধুতে হবে।
  • সাবান না থাকলে হেক্সিসল ব্যবহার করুন। হেক্সিসল না থাকলে হ্যান্ড সেনিটাইজার ব্যবহার করুন।
  • আক্রান্ত ব্যক্তি থেকে দূরে থাকুন, যতটুকু সম্ভব ভীড় এড়িয়ে চলুন।
  • বাজারে কিছু স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকুন, করলে হাত সাবান দিয়ে ধুয়ে নিন।
  • টাকা গোনা ও লেনদেনের পর হাত সাবান দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।
  • ওভার ব্রিজ ও সিড়ির রেলিং ধরে ওঠা থেকে বিরত থাকুন।
  • পাবলিক প্লেসে দরজার হাতল, পানির কল স্পর্শ করতে টিস্যু ব্যবহার করুন।
  • হাত মেলানো, কোলাকুলি থেকে বিরত থাকুন।
  • নাক, মুখ ও চোখ চুলকানো থেকে বিরত থাকুন।
  • হাঁচি কাশির সময় কনুই ব্যবহার করুন।
  • আপনি যদি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত না হয়ে থাকেন তবে মাস্ক ব্যবহার আবশ্যক নয় তবে আক্রান্ত হলে সংক্রমণ না ছড়াতে নিজে মাস্ক ব্যবহার করুন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকুন। Stay Home, Stay Safe.