চেলে লা পাস

ভালো লেগেছে
0
Ratings
রেটিংস ( রিভিউ)

চেলে লা পাস – ভুটান এর আরেকটি পরিচিত গিরিপথ। এ পথেই এক সময় তিব্বতের সাথে বাণিজ্য চলত আবার এ পথেই তিব্বত বেশ কয়েকবার আক্রমন করেছিলো। ইদানিং এ পথে পর্যটকরা ভিড় জমান। পারো এয়ারপোর্টকে পাশ কাটিয়ে এক ঘন সবুজ পাইন এর অরণ্যঘেরা রাস্তা দিয়ে যেতে হয়। প্রায় ২৩ কিলোমিটার এই যাত্রা পথ। নানান পাখি আর বন্যপ্রানের উপস্থিতি এসব বনে। নীল আকাশের নীচে এক ছবির মত আঁকা এক গিরিপথ যার নাম চেলে লা পাস। হিমালয়ের হিমেল বাতাসের স্পর্শ, সহস্র প্রেয়ার ফ্ল্যাগ আর আকাশপানে হিমালয়ের শৃঙ্গমুখ। চেলে লা পাহাড়ের উপর থেকে ভুটানের ভিউটা এক কথায় অসাধারন।

পারো থেকে ‘হা’ যাওয়ার পথেই চেলে লা পাস – যা ভুটানের উচ্চতম সড়কপথ। উচ্চতার কারণেই ঠান্ডা বেশি এখানে। প্রায় ১৩,০৮৪ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত চেলেলা পাস (Chele La Pass) থেকে দেখা নৈসর্গিক দৃশ্যের বর্ণনা দেওয়ার ভাষা কারো নেই। সূর্য থাকলে এবং মেঘ না থাকলে মাউন্ট জোমোলহরি এখান থেকে দেখা যায়। পারো থেকে চেলেলা পাসের রাস্তা জুড়েই সবুজ উপত্যকা, নানা রং-এর ফুল, কমলালেবু আর আপেল বাগান।

ভূটানের সর্বোচ্চ গাড়ি চলাচলযোগ্য রাস্তা এই চেলেলা পাস (highest motorable pass) রাস্তাটি সংযোগ ঘটিয়েছে পারো ভ্যালী ও হা’ভ্যালীর। চেলে লা পাস এ থাকার কোন ব্যবস্থা নেই। পারো থেকে গাড়ি  নিয়ে চেলে লা থেকে ঘুরে আসতে পারবেন।

কিভাবে যাবেন

পারো থেকে পাহাড় ও মেঘের মধ্যে দিয়ে ভুটানের উচ্চতম সড়কপথে ২ ঘন্টা যাওয়ার পর মিলবে চেলেলা পাস।

ঘুরতে যেয়ে পদচিহ্ন ছাড়া কিছু ফেলে আসবো না,
ছবি আর স্মৃতি ছাড়া কিছু নিয়ে আসবো না।।

দিক নির্দেশনা

আপনার রিভিউ দিন

* বাধ্যতামূলক ভাবে পূরণ করতে হবে।

Sending