বমডিলা

Ratings
রেটিংস ( রিভিউ)

সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২৪৩৮ মিটার বা ৮২০০ ফুট উঁচুতে অবস্থিত বমডিলা অরুণাচল প্রদেশের কামেং জেলার একটি ছোট্ট শহর যা মেঘের আপন ঘর হিসাবে পরিচিত। হটাৎ এক পশলা বৃষ্টির পর আকাশ হয়তো সোনালী রোদে ঝলমল করবে আবার পরক্ষণেই আবার মেঘাছন্ন হয়ে পড়বে বমডিলা (Bomdila) এর আকাশ। উঁচু নিচু ধাপে পাহাড়, ভিলাধর্মী ঘরবাড়ি। বর্ণময় মনপা উপজাতিদের বাস। কুয়াশায় হারিয়ে যাওয়া রাস্তায় হাঁটতে হাঁটতে পৌঁছে জান বমডিলা পাস। পাহাড়ের গায়ে অজস্র স্ট্রবেরি গাছে লাল স্ট্রবেরি ঝুলে রয়েছে। পাকদণ্ডি পথে পাহাড়ের উপরে উঠে একজায়গায় দেখতে পাবেন সারি সারি লম্বা লম্বা বাঁশে বিশাল আকারের তারাশোক উরছে। মনপা উপজাতিরা বিরাত দৈঘ্যের লাল, সাদা, হলুদ, সবুজ রঙ্গয়ের কাপড়ের উপর বৌদ্ধ মন্ত্র লিখে টাঙ্গিয়ে দেয়। এগুলোই তারাশোক। এখান থেকে নিচের উপত্যকা দৃশ্য অপরূপ। আরও পাহাড়ের উপরে উঠলে আপার মনাস্ট্রি। প্রার্থনা কক্ষে শাক্যমুনি বুদ্ধের বিশাল মূর্তি। মূর্তির একপাসে রয়েছে অবলোকিতেশ্বর ও অন্যপাশে রিনচেংপংযের মূর্তি। মনস্ট্রির মধ্যে ছায়াছন্ন বন্য ধুপের গন্ধ বাতাসে মিশে গিয়ে এক রহস্যময় প্রাচীনত্বের আভাস দেয়। রাশি রাশি পুথির মধ্যে স্তরে স্তরে সাজানো এখানকার ইতিহাস। এখানে হাজার বছরেরও পুথি রয়েছে। নীচে বাজার এলাকায় রয়েছে থুবটেক মনাস্ট্রি। এটি বমডিলার পুরানো গুম্ফা। বমডিলা ভ্রমণে অবশ্য দ্রষ্টব্য লোকসংস্কৃতি মিউজিয়াম। এখানে অরুণাচলের বিভিন্ন উপজাতি গোষ্ঠীর জীবনযাত্রা, সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড, উৎসব প্রভিতি বিষয় যত্ন সহকারে সংরক্ষণ করা রয়েছে।

কখন যাবেন

ডিসেম্বর থেকে মার্চের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত বরফ ও বরফে মোড়া হিমালয়ের নয়নাভিরাম নৈসর্গিক শোভার জন্য বমডিলার প্রশস্তি। তবে এই সময় মাঝে মধ্যেই রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়। তাই বসন্তের ছুটিতে বমডিলাই যাওয়া বুদ্ধিমানের কাজ।

কিভাবে যাবেন

গুয়াহাটি থেকে গাড়ী ভাড়া করে বা বাসে করে চলে যেতে পারেন তেজপুর, দূরত্ব ১৬৬ কিমি। তেজপুর থেকে ভালুকপঙ বা ভালুকপং হয়ে বমডিলা (Bomdila) এর দূরত্ব ১৬১ কিমি। এ পথে বাস রয়েছে। সময় নেয় সাত ঘণ্টা। ভাড়া লাগে ২২০-২৫০ টাকা। তবে বাসের উপর নির্ভর না করে শেয়ার টাটাসুমোতে যাওয়া বুদ্ধিমানের কাজ। ৬-৮ জনের দল হলে পুরো গাড়ী ভাড়া নেওয়া যেতে পারে।

কোথায় থাকবেন

বমডিলাতে থাকার সেরা জায়গা অরুণাচল পর্যটনের ট্যুরিস্ট লজ, ভাড়া ৮০০-১৫০০ টাকা, যোগাযোগ- ০৯৪৩৬৬৭১৯৪৯। এছাড়া পানচেন লজ, ভাড়া ৯০০-১২০০ টাকা, যোগাযোগ- ০৩৭৮২২২২৩৭৪। হোটেল সাংগ্রিলা, ভাড়া ৮০০-১০০০ টাকা, যোগাযোগ- ০৩৭৮২২২২২২৬। হোটেল যাত্রী নিবাস, ভাড়া ৬০০-৯০০ টাকা, যোগাযোগ- ০৩৭৮২২২৩০০৫। নেটিভ ইন, ভাড়া ২০০০-৪৮০০ টাকা, যোগাযোগ- ০৩৭৮২২২৩৪৭৩।

চিন-তিব্বত সীমান্তে অবস্থানের জন্য অরুণাচল প্রবেশে ইনারলাইন পারমিট লাগে। পশ্চিম, মধ্য ও পূর্ব অরুণাচলের জন্য আলাদা আলাদা পারমিট করতে হবে।

ঘুরতে যেয়ে পদচিহ্ন ছাড়া কিছু ফেলে আসবো না,
ছবি আর স্মৃতি ছাড়া কিছু নিয়ে আসবো না।।

View Direction

আপনার রিভিউ দিন

* বাধ্যতামূলক ভাবে পূরণ করতে হবে।

Sending