সিপ্পি আরসুয়াং

সিপ্পি আরসুয়াং

বাংলাদেশের সর্বোচ্চ চূড়াগুলোর মধ্যে সিপ্পি আরসুয়াং (Sippi Arsuang) অন্যতম, যার উচ্চতা আনুমানিক ৩০৩৪ ফুট যা বাংলাদেশের ১০ম সর্বোচ্চ চূড়া। সিপ্পি আরসুয়াং পাহাড়ের অবস্থান বাংলাদেশের পার্বত্য চট্রগ্রামের বান্দরবান জেলার রোয়াংছড়ি উপজেলার অনেক গহীনে। রোয়াংছড়িতে অবস্থিত এই পাহাড়টি বিগিনারদের জন্য আদর্শট্রেক হতে পারে। সময়ও কম লাগে। মাত্র তিনদিনেই এই ট্রেক শেষ করে আসা যায়।  বিভিন্ন … বিস্তারিত

মুনলাই পাড়া, রুমা

বান্দরবান শহর থেকে মাত্র দুই-আড়াই ঘণ্টার যাত্রায় চলে যাওয়া যায় ৫৪ বম পরিবারের প্রশান্তময় পাহাড়ি গ্রাম মুনলাই (Munlai Para) পাড়াতে। চারিদিকে পাহাড় বেষ্টিত এবং সাঙ্গু নদী বিধৌত এই পাড়াটিতে উপভোগ করতে পারবেন স্ট্যান্ডার্ড কিন্তু ইকো সিস্টেমের হোম স্টে এবং পাহাড়ি রান্নার অসাধারণ স্বাদ, রোমাঞ্চকর ট্রেকিং, কায়াকিং, … বিস্তারিত

কেওক্রাডং

বর্ষা মৌসুমে কেওক্রাডং ট্র্যাকিং

ঢাকা থেকে রাতের শেষ বাসে বান্দরবান এর উদ্দেশ্যে রওনা। ঢাকা থেকে বান্দরবান নন এসি বাস (হানিফ, শ্যামলি, ইউনিক, এসআলম) ভাড়া ৬২০ টাকা। এসি বাস (শ্যামলী,সেন্টমারটিন) ভাড়া ৯৫০ টাকা। পরদিন ভোরে বান্দরবান টার্মিনালে নামার পর সকালের নাস্তা করে ফেলুন। টার্মিনালের আশেপাশে অনেক চান্দের গাড়ি আপনার আশেপাশে … বিস্তারিত

নাইক্ষ্যংছড়ি উপবন পর্যটন লেক

নাইক্ষ্যংছড়ি উপবন পর্যটন লেক

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আর বৈচিত্র্যের লীলাভূমি বান্দরবান। উঁচুনিচু পথ, পাহাড়ের শরীর জুড়ে ঘন সবুজের সমারোহ যেন একেঁবেঁকে চলে গেছে গভীর থেকে আরো গভীরে। বৈচিত্র্যময় পাহাড়ি জেলা বান্দরবন এর রূপের জাদুর যেন শেষ নেই। প্রকৃতি তার আপন খেয়ালে এখানে মেলে ধরেছে তার সৌন্দর্যের মায়াজাল। বান্দরবনের পাহাড়, ঝর্ণা, লেক সবকিছুতেই রয়েছে বর্ণিল … বিস্তারিত

ভেলাখুম, বান্দরবান

নাফাখুম, আমিয়াখুম, সাতভাইখুম এবং ভেলাখুম ট্যুরের বিস্তারিত রিভিউ

আমরা ছিলাম ৫ জন, ট্যুরের প্লান ছিল ৩ দিন চার রাতের কিন্তু পরবর্তীতে এক প্রকার বাধ্য হয়েই ট্যুরটা ৪ দিন পাঁচ রাতের হয়ে যায়। সে ব্যাপারে পরে বলছি। গত ২২ মার্চ, ২০১৮ তারিখ রাতে ১১.৩০ টার বাসে টিকিট কাটি তারও এক … বিস্তারিত

ভেলাখুম, বান্দরবান

ভেলাখুম

ভেলাখুম (Velakhum) এর জল-পাথরের রাজত্বে ভেলা বাইতে বাইতে অপার্থিব এক অনুভূতির জন্ম হয়! দুই পাশে পাথরের সুউচ্চ দেয়াল আর মাঝখান দিয়ে শান্ত-স্বচ্ছ সবুজ পানির এই লেগুন নেমে এসেছে আমিয়াখুম থেকে। আমিয়াখুমের আপ স্ট্রিমের এই জল-গিরি পথ পাড়ি দেবার সময় বিশ্বাস … বিস্তারিত

তিনাম ঝর্ণা

তিনাম ঝর্ণা

তিনাম ঝর্ণা (Tinam Waterfall), বাংলাদেশের পার্বত্য জেলা বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় অবস্থিত অপরুপ একটি ঝর্ণা। প্রকৃতির আরেক বিস্ময় এই ঝর্ণা। সুউচ্চ পাহাড় থেকে খানিক দূরত্বে পাশাপাশি দুইটি ঝর্ণা ওবিরাম ধারায় ঝরে পড়ছে অবিরত। তিনাম ঝর্ণাটি দেখতে আলীকদম সদর থেকে মাতামুহুরী নদীপথে অন্তত ৬০/৭০ কিলোমিটার দূরে যেতে হয়। বর্ষায় এ ঝর্ণার পানি প্রবাহ অনেক বেশি … বিস্তারিত

আমিয়াখুম

আমিয়াখুম, ভেলাখুম, ক্রাইক্ষ্যং ঝর্না, নাফাখুম, রেমাক্রী ফলস ভ্রমণ

আজ ২০ তারিখ, রাত ১১:২০, জিন্না পাড়ার কটেজ। সাত ঘন্টা ট্রেকিং এরপর অবশেষে কটেজে পোঁছালাম। এত কঠিন ট্রেকিং পর আমার মনে হচ্ছে আমি আর বাঁচব না। কাল ভয়ংকর দেবতা পাহাড় পার করতে হবে, হয়তো ওখানেই আমার শেষ। যদি আমার মৃত্যু হয় তাইলে আজকের এই এত কষ্টের পথ পাড়ি দেয়ার কথা কেউ জানবে না। … বিস্তারিত

দেবতাখুম, রোয়াংছড়ি, বান্দরবান

দেবতাখুম, রোয়াংছড়ি, বান্দরবান ভ্রমণ

জীবনে প্রথম বান্দরবান গেলাম আর ঘোরাটা শুরু করলাম দেবতাখুম দিয়ে। মেঘনা ব্রিজের কল্যানে ৬ঘন্টা জ্যাম খেয়ে সর্বোমোট ১৫ ঘন্টার ম্যারাথন জার্নি শেষ করে বান্দরবান গিয়ে নামলাম রাত ১০.৪০ এ। নেমে বিপদেই পড়লাম। আমার রুম তো ঠিক করা রোয়াংছড়ি তে। আর ওই দিন (২১/০২/১৯) তো কোথাও কোন সিট ফাঁকা নেই। ভাগ্য ভালো ছিল তাই রুমের … বিস্তারিত

দেবতাখুম, বান্দরবান

দেবতাখুম ভ্রমণ

আপনি কি বন্য পরিবেশে সত্যিকারের কায়াকিং-এর অভিজ্ঞতা নিতে চান, খাড়া ৬০০ ফিট দুই পাহাড়ের মাঝে ভেলায় ভাসতে চান তাহলে চলে যান বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলার কচ্ছপতলি ইউনিয়নের অন্তর্গত তারাসা খালের পাড়ে মারমা পাড়া “শীলবান্ধা”র দেবতাখুমে। দেবতাখুম বান্দরবানের থানচি উপজেলার নাফাখুম, ভেলাখুম, সাতভাইখুম, আমিয়াখুমের মতই বিশাল বিশাল পাথরখন্ড এবং পাহাড়ের ভাজে আরেকটি খুমের … বিস্তারিত

তাজিংডং, বান্দরবান
যুক্ত করা হয়েছে

তাজিংডং বিজয়

স্থানীয় উপজাতীয়দের ভাষায় ‘তাজিং’ শব্দের অর্থ বড় আর ‘ডং’ শব্দের অর্থ পাহাড়, এ দুটি শব্দ থেকে তাজিংডং পর্বতের নামকরণ করা হয়। সরকারি ভাবে, একে বিজয় পর্বত নামেও সম্বোধন করা হয়। তাজিংডং বাংলাদেশের বান্দরবন জেলার রুমা উপজেলার রেমাক্রী পাংশা ইউনিয়নে সাইচল পর্বতসারিতে অবস্থিত। এটি বান্দরবান জেলার রুমা উপজেলার, উপজেলা সদর থেকে ২৫ কিলোমিটার … বিস্তারিত

যোগি হাফং

বর্ষায় যোগি হাফং চূড়া আরোহণ

যোগি হাফং (Jogi Haphong) যা বাংলাদেশের ৪র্থ সর্বোচ্চ চূড়া। ২০১৮ সালের আগস্ট মাসে যোগি হাফং এর চূড়া জয় করতে গিয়েছিলাম। মাসের শেষের দিকে তখন, কলেজের পরিক্ষা শেষে মাত্রই কুরবানির বন্ধ দিয়েছিল। লম্বা ছুটি পেলে, আমার কখনো ঘরে বসে থাকতে মন চাই না। এই বন্ধে চেয়েছিলাম, বাসাই না থেকে দূরে … বিস্তারিত