সুলুবান বীচ, বালি

ভালো লেগেছে
1

সুলুবান শব্দটি যে বালিয় শব্দ থেকে উৎপন্ন হয়েছে তার আক্ষরিক অর্থ দাঁড়ায় ‘ঝুঁকে পড়া’। দুই পাথরের মধ্যে সৃষ্ট ছোট্ট গুহা দিয়ে এই বীচে ঢোকার সময় ঝুঁকে পড়া বাধ্যতামূলক বলেই হয়তো এই রকম নামকরণ। যেহেতু এই বীচে যাওয়ার সরাসরি কোন পথ নেই তাই এইটাকে হিডেন বীচও বলা হয়। গুহা দিয়ে বের হয়েই আপনার চোখে পড়বে বড় বড় নীলচে ঢেউ আছড়ে পড়ছে সুলুবান বীচ (Suluban Beach) এর শুভ্র বালিয়াড়ীতে।

আকারে বেশ ছোট কিন্তু নয়নাভিরাম এই বীচ। তাছাড়া একটু দুর্গম আর কাছাকাছি পাদাং পাদাং বা ড্রীমল্যান্ড বীচের মতো জনপ্রিয় বীচ থাকাতে এখানে পর্যটকের আনাগোনা তুলনামুলক কম। অবিরাম বড় বড় ঢেউয়ের জন্য সার্ফারদেরও খুব পছন্দের জায়গা এই সুলুবান বীচ যেখানে আন্তর্জাতিক সার্ফিং প্রতিযোগিতাও হয় হরহামেশাই।

কিভাবে যাবেন

বালিতে পৌঁছে অবস্থান নিন সেমিনিয়াক বা কুটা বীচের কাছাকাছি কোথাও। তারপর একদিনের জন্য গাড়ি ভাড়া করে বা স্কুটি ভাড়া করে সকাল সকাল চলে যান সুলুবান বীচে। তারপর দুপুর পর্যন্ত এখানে জলকেলি করে লাঞ্চ সেরে চলে যান উলুয়াটু টেম্পলে বিকেল আর সূর্যাস্ত দেখতে যেটা খুব কাছে এই বীচ থেকে।

×

করোনা (COVID-19) ভাইরাস থেকে সতর্ক থাকতে যা করনীয়ঃ

  • সবসময় হাত পরিষ্কার রাখুন। সাবান দিয়ে অন্তত পক্ষে ২০ সেকেন্ড যাবত হাত ধুতে হবে।
  • সাবান না থাকলে হেক্সিসল ব্যবহার করুন। হেক্সিসল না থাকলে হ্যান্ড সেনিটাইজার ব্যবহার করুন।
  • আক্রান্ত ব্যক্তি থেকে দূরে থাকুন, যতটুকু সম্ভব ভীড় এড়িয়ে চলুন।
  • বাজারে কিছু স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকুন, করলে হাত সাবান দিয়ে ধুয়ে নিন।
  • টাকা গোনা ও লেনদেনের পর হাত সাবান দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।
  • ওভার ব্রিজ ও সিড়ির রেলিং ধরে ওঠা থেকে বিরত থাকুন।
  • পাবলিক প্লেসে দরজার হাতল, পানির কল স্পর্শ করতে টিস্যু ব্যবহার করুন।
  • হাত মেলানো, কোলাকুলি থেকে বিরত থাকুন।
  • নাক, মুখ ও চোখ চুলকানো থেকে বিরত থাকুন।
  • হাঁচি কাশির সময় কনুই ব্যবহার করুন।
  • আপনি যদি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত না হয়ে থাকেন তবে মাস্ক ব্যবহার আবশ্যক নয় তবে আক্রান্ত হলে সংক্রমণ না ছড়াতে নিজে মাস্ক ব্যবহার করুন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকুন। Stay Home, Stay Safe.

দিক নির্দেশনা

আপনার রিভিউ দিন

* বাধ্যতামূলক ভাবে পূরণ করতে হবে।