কোহ লান্তা

ভালো লেগেছে
3
Ratings
রেটিংস ( রিভিউ)

ক্রাবি অঞ্চলের বৃহত্তম দ্বীপ হল কোহ লান্তা। একগুচ্ছ দ্বীপ নিয়ে গঠিত কো লান্তা। এখানে সবথেকে বড় দ্বীপটি কো লান্তা ইয়াই। এর পশ্চিম প্রান্তে একাধিক সৈকত রয়েছে।  কোহ লান্তা দ্বীপটি অপেক্ষাকৃত সমতল এবং এখানে মোটবাইকে যাতায়াত করা যায় প্রায় সর্বত্রই। আপনি এই দ্বীপে ঘণ উপকূলীয় বৃক্ষের জঙ্গল , প্রাকৃতিক ম্যানগ্রোভ, বৈচিত্র্যপূর্ণ সংস্কৃ্তি, আতিথেয়তাপরায়ণ স্থানীয় মানুষজন এবং প্রচুর ভাল ভাল খাবার জায়গা পাবেন। এখানকার বীচগুলি অসাধারণ এবং থাইল্যাণ্ডের অন্য যেকোন বীচের থেকে সুন্দর – সুদূরবিস্তৃত সাদা বালিতে রোদের মাখামাখি এবং আদুরে নরম ঢেউ। আপনার মাথায় যদি অ্যাডভেঞ্চারের ভুত থাকে তাহলে থাম খাও মাইকেও ঘুরে অসুন – এটি জংলী গুহা এবং পাহাড়ী সুড়ঙ্গের একটি নেটওয়ার্কের মত, যেটি আপনাকে নিয়ে যাবে ক্যাথেড্রালের মত প্রমাণ আকারের চেম্বারে যেখানে ওপর থেকে ঝুলে থাকবে স্ট্যালেকটাইট আর পায়ের নীচে স্ট্যালেগমাইট। কোহ লান্তা (Koh Lanta) এর অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টসের জন্য বিখ্যাত এবং এখানে রয়েছে পৃথিবীর আশ্চর্যকর সব কোরালের ডুবো পাহাড়।

স্কুবা ডাইভিং এবং স্নোরকেলিং এর জন্যে বিখ্যাত কোহ লান্তা।

কিভাবে যাবেন

বাংলাদেশ থেকে বিমানে আড়াই ঘণ্টায় পৌঁছে যাওয়া যায় থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের সুবর্ণভূমি ইন্টারন্যাশনাল এয়াপোর্টে। তারপর যে কোনো এক অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে এক ঘণ্টার আগেই পৌঁছে যাওয়া যায় ক্রাবি। ক্রাবি থেকে ট্যাক্সি করে চলে যেতে হবে স্পিডবোট সার্ভিস এর নিজস্ব ঘাটে। এক্সপ্রেস স্পিডবোটে ১৫ মিনিটের মত সময় লাগে কোহ লান্তা পৌঁছাতে। স্পিডবোট ব্যবহার করলে গাড়ির ফেরীর জ্যামটা এড়িয়ে যাওয়া যায়।

কোথায় থাকবেন

কোহ লান্তাতে থাকার জন্যে বাজেট হোটেল থেকে শুরু করে ভালো মানের হোটেল আছে। কোহ লান্তা এর সেরা ১০ টি হোটেল দেখে নিতে পারেন এখান থেকে

ঘুরতে যেয়ে পদচিহ্ন ছাড়া কিছু ফেলে আসবো না,
ছবি আর স্মৃতি ছাড়া কিছু নিয়ে আসবো না।।

আপনার রিভিউ দিন

* বাধ্যতামূলক ভাবে পূরণ করতে হবে।

Sending