কন্যাকুমারী

ভারতবর্ষের ম্যাপের একেবারে শেষবিন্দুতে তিনসাগরের মিলনক্ষেত্রে স্বামী বিবেকানন্দের স্মৃতিমাখা শহর কন্যাকুমারী যা তামিল নাড়ু প্রদেশের অর্ন্তগত। ভারতের একেবারে দক্ষিণে পুণ্যতীর্থ কন্যাকুমারী এর অবস্থান। আরব সাগর, বঙ্গোপসাগর আর ভারত মহাসাগরের ত্রিবেণী সঙ্গম হয়েছে এখানে। কন্যাকুমারী থেকে সূর্যোদয় আর সূর্যাস্ত অনবদ্য।

সমুদ্রের তীরে দেবী কুমারী আম্মান মন্দির। আজও পার্বতী এখানে কুমারীরূপে শিবের প্রতীক্ষারত। কাছেই লঞ্চঘাট। বিবেকানন্দ রক মেমোরিয়ালে যাওয়ার জন্য লঞ্চ ছাড়ছে। সাগরের মাঝে পাথুরে টিলার ওপর অজন্তা ও ইলোরার গুহামন্দিরের আদলে তৈরি রক টেম্পলটি। ব্রোঞ্জের অবয়বে দাঁড়িয়ে স্বামী বিবেকানন্দ। ওদিকে আরও এক বিশাল পাথরখণ্ডের ওপর ১৩৩ ফুটের মূর্তি তামিল কবি তিরুভাল্লুভারের। কুমারী মন্দিরের কাছে গান্ধী মেমোরিয়াল। গান্ধীজির চিতাভস্ম এখানে রাখা হয়েছিল।

কন্যাকুমারী (Kanyakumari) থেকে ৬ কিলোমিটার দূরে ১৮ শতকে গড়া পর্তুগিজদের দুর্গ ভেট্টাকোট্টা দেখে নেওয়া যায়। ১৩ কিলোমিটার দূরে সুচিন্দ্রম মন্দিরে ব্রহ্মা, বিষ্ণু, মহেশ্বরের অধিষ্ঠান। বৈষ্ণব ও শৈব ধর্মাবলম্বীদের পবিত্র তীর্থস্থান। ১৯ কিলোমিটার দূরে নাগেরকয়েলে সর্পদেবতার মন্দির। শহর থেকে ৪৫ কিলোমিটার দূরে পদ্মনাভপুরমে রয়েছে ত্রিবাঙ্কুর রাজাদের রাজপ্রাসাদ। ১৭ ও ১৮ শতকের প্রাচীন কারুশিল্প ও চিত্রসম্ভার দর্শনীয়।

কিভাবে যাবেন

মাদুরাই থেকে অহরহ বাস যাচ্ছে কন্যাকুমারীর দিকে। সময় লাগে পাঁচ ঘণ্টার মত। কেরলের ত্রিবান্দম থেকেও বাস যায় কন্যাকুমারীতে।

কোথায় থাকবেন

কন্যাকুমারীতে থাকবার সেরা জায়গা রাজ্য পর্যটনের হোটেল তামিলনাড়ু, ভাড়া ৮০০-২,৮০০ টাকা, যোগাযোগ- ০৪৬৫২-২৪৬২৫৭। এছাড়া হোটেল সমুদ্র, ভাড়া- ৮০০-১,২০০ টাকা, যোগাযোগ- ০৪৬৫২-২৪৬১৬২। হোটেল শিবা প্যালেস, ভাড়া- ৭০০-১,৪০০ টাকা, যোগাযোগ- ০৩৩-২২১২৯৭৮৮।

ঘুরতে যেয়ে পদচিহ্ন ছাড়া কিছু ফেলে আসবো না,
ছবি আর স্মৃতি ছাড়া কিছু নিয়ে আসবো না।।

View Direction

আপনার রিভিউ দিন

* বাধ্যতামূলক ভাবে পূরণ করতে হবে।