বিচু, নর্থ সিকিম, ভারত

বিচু

বিচু (Bichu), উত্তর সিকিমের এক ছোট্ট অপূর্ব মনোরম গ্রাম যা ৮৬০০ ফিট উচ্চতায় অবস্থিত। বিচুতে মূলত লেপচা এবং ভুটিয়াদের বাস। গ্যাংটক থেকে বিচুর দুরত্ব ১১০ কিলোমিটার এবং নিউ জলপাইগুড়ি থেকে প্রায় ১৮৫ কিমি। চুংথাং থেকে লাচুং যাওয়ার পথে এই গ্রাম পর্যটকদের নজর কাড়বে। যদিও এই স্পট হিমালয়ান ট্রাভেলারদের কাছে বেশি জনপ্রিয় নয়। গোটা … বিস্তারিত

লাচুং, নর্থ সিকিম

সিকিম ভ্রমণ – কিছু পরামর্শ এবং আমার খরচের হিসাব

সিকিম সে তো স্বর্গের আরেক নাম। আর সেই সিকিম (Sikkim) থেকে ঘুরে আসলাম ২০১৯ সালের মার্চের ২৪ থেকে ১ তারিখ পর্যন্ত। প্রথমে কিছু গুরুত্বপূর্ণ কথা শেয়ার করছি যা আপনার সিকিম ট্যুরে কাজে আসবে। এরপর আমাদের ট্যুরের সকল বৃত্তান্ত খরচসহ শেয়ার করছি। সিকিম ভ্রমণে কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ বাংলাবান্ধা থেকে শিলিগুড়ি মাত্র ১২ কি.মি রাস্তা। সুতরাং ভিসার … বিস্তারিত

North Sikkim নর্থ সিকিম
যুক্ত করা হয়েছে

ঢাকা থেকে সিকিম ভ্রমণ

অনেকদিন থেকেই প্ল্যান ছিল বরফ এর উপর হাটবো, স্নোফল দেখবো নিজের চোখে। বৃষ্টির মতো গায়ের উপর পড়বে স্নো! এরকম একটা চিন্তা আর অল্প খরচের কথা মাথায় রেখেই শীতকালে সিকিম ট্যুরের পরিকল্পনা শুরু। শীতকালে সিকিম ট্যুরের ভালো-খারাপ ২ দিকই রয়েছে। ভালো দিক আপনি প্রচুর … বিস্তারিত

বোরং, রাভাংলা, সিকিম

বোরং

সাউথ সিকিম এর রাবাংলা থেকে মাত্র ১৭ কিলোমিটার দূরের বোরং (Borong) গ্রামটি অফবীট লোকেশন হিসেবে প্রকৃতি প্রেমীদের কাছে আদর্শ একটি জায়গা। মধুচন্দ্রিমা কিংবা হানিমুনের জন্যও খুব রোমান্টিক জায়গা এটি। নির্জন আপন ভোলা একটি গ্রাম বোরং। হাঁটি হাঁটি পা পা করে গ্রামীণ প্রকৃতিকে দেখা ছাড়াও এখানকার সিলভার ফলসের (Silver Falls) শুভ্র উচ্ছল জলের খেলা, ঝুলন্ত … বিস্তারিত

ইয়াকসাম, পশ্চিম সিকিম

ইয়াকসাম

৫,৮০০ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত ইয়াকসাম (Yuksom) সিকিম এর প্রথম রাজা চোগিয়াল নামগিয়ালের রাজধানী ছিলো যা গ্যাংটক থেকে ১২০ কিমি দূরে ওয়েস্ট সিকিমে অবস্থিত হলেও পেলিং থেকে এর দূরত্ব মাত্র ৪০ কিমি। কাঞ্চনজঙ্ঘা ফলস থেকে ১৬কিমি এগুলে কারুকাজময় একটি সিকিমি তোরণ পেরিয়ে পৌঁছে যাওয়া যায় ইয়াকসাম। ছবির মত … বিস্তারিত

চোপতা ভ্যালী, লাচেন, সিকিম

বাংলাদেশ থেকে নর্থ সিকিম ভ্রমণ – ৫ রাত ৪ দিন

প্রথমেই বলে রাখি সিকিম খুবই পরিচ্ছন রাজ্য আর নর্থ সিকিমে প্লাস্টিকের বোতল নেয়া নিষিদ্ধ। যেখানেই যাবেন, পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখবেন। দরকার পড়লে খাবারের খোসা সাময়িক সময়ের জন্য ব্যাগে রেখে দিয়ে পরে ডাস্টবিনে ফেলবেন। সিকিমে বিভিন্ন ভাষাভাষী/ধর্ম/জাতের মানুষ বসবাস করে, কারো অনুভুতিতে আঘাত আনতে পারে … বিস্তারিত

টেমি টি গার্ডেন, নামচি

অফবিট পশ্চিম সিকিম ঘোরার প্ল্যান

সিকিম মানেই গ্যাংটক, গুরুদংমার, সিল্করুট আর পশ্চিম সিকিম মানেই পেলিং। যাবতীয় সিকিম ট্যুরিজম, পর্যটকদের আকর্ষণ ঐদিকেই কিন্তু নিরিবিলি, শান্ত, অফবিট সিকিম যারা ভালো বাসেন তাদের জন্য পশ্চিম সিকিমের রিনচেনপং, কালুক, ছায়াতাল, উত্তরে সার্কিট সেরা। গ্যাংটক, পেলিং এর মতো অতো ভিড়ভাট্টা নেই ঠিকই কিন্তু প্রকৃতি আছে, আছে অনেক ট্যুরিস্ট স্পটও। সবচেয়ে বড়ো কথা পেলিং এর … বিস্তারিত

পেলিং, সিকিম

পেলিং

পেলিং (Pelling) ওয়েস্ট সিকিম এর খুব পরিচিত হিল স্টেশন যা ৬৭০০ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত এবং এটি কাঞ্চনজঙ্ঘার অপরূপ শোভা দেখার জন্য বিখ্যাত। মূলত তিনটি ভাগে পেলিংকে ভাগ করা হয়েছে – আপার, মিডল এবং লোয়ার পেলিং। অসাধারণ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা পেলিং এর আশেপাশে ছড়িয়ে আছে বেশ কিছু দর্শনীয় স্থান। পাগল করা ঝর্ণা, নদী, … বিস্তারিত

লাচুং, নর্থ সিকিম

লাচুং

লাচুং (Lachung) ভারতের নর্থ সিকিমের একটা গ্রাম যা ৯৬০০ ফিট উচ্চতায় অবস্থিত। প্রকৃতির নৈসঃর্গিক সৌন্দর্য্য উপভোগ করার জন্যে নিঃসন্দেহে খুব উপরের দিকেই জায়গা করে নেবে। এত সুন্দর, নিরালা ছবির মত পাহাড়ি গ্রাম সিকিম এ খুব কমই পাবেন। গ্যাংটক থেকে লাচুং পর্যন্ত আপনার সঙ্গী হয়ে থাকবে প্রকৃতির অপরূপ শোভা … বিস্তারিত

ভার্সে

ভার্সে

পশ্চিম সিকিম এর এই জায়গাটার নাম কেউ বলে বার্সে, আবার কেউ বলে ভার্সে যা পশ্চিম সিকিমের এক বিখ্যাত ট্রেকিং ডেস্টিনেশন। এই ভার্সে জায়গাটির পরিচিতি প্রধারণত ‘ভার্সে রডোডেনড্রন স্যাংচুয়ারি’ (Varsey Rhododendron Sanctuary) এর জন্য যা ১০৪ বর্গ কিমি জুড়ে বিস্তৃত। এই স্যাংচুয়ারিটি সিঙ্গালিলা জাতীয় উদ্যানের অন্তর্গত যার পশ্চিম প্রান্তে নেপাল সীমান্ত। ১০,০০০ ফিট … বিস্তারিত

ওখড়ে, সিকিম

ওখড়ে

পশ্চিম সিকিম (West Sikkim) এর ছোট্ট একটা গ্রাম ওখড়ে। ওখড়ে (Okhrey) কে বার্সে এর গেটওয়েও বলা হয়ে থাকে। সিকিম রাজ্যটার প্রতিটা বাঁকেই প্রকৃতি বেশ সুন্দর সাজুগুজু করে থাকে। গুটিকতক ছড়ানো ছিটনো কাঠের বাড়ি নিয়ে তৈরি এই পুঁচকি গ্রামটিও এক অনন্য টুরিস্ট স্পট, যদিও এখন বেশ কিছু … বিস্তারিত

রাবাংলা, সিকিম

বাংলা থেকে রাবাংলা ভ্রমণ

জানুয়ারী মাসে পাহাড়ে পর্যটক ভিড় একটু কম থাকে, তাই গাড়ি, হোটেল এর দাম অনেকটাই কম হয়। আমরা কিন্তু প্রতি বছর শীতকলে এই পাহাড়ের কাছে আসি। আমার কাছে শীতকাল মানে পায়ে চাকা বাধা। শীতকাল মানে পাহাড়, জঙ্গল, লালমাটির পথ আর বঙ্গের সমুদ্র তীর। এসেছিলাম প্রতি বছরের … বিস্তারিত