লিচু বাগান

ভালো লেগেছে
1

দিনাজপুর, লিচুর জন্যে দেশব্যাপী পরিচিত এই জেলাটি। এই জেলার ১৩ উপজেলাতেই লিচু চাষ হয়। লিচুর সিজনে প্রতিটি লিচু গাছে শোভা পায় থোকায় থোকায় মুকুল। প্রতি বছরই ক্রমান্বয়ে বেড়ে চলেছে লিচু চাষের জমির পরিমাণ। এখন সারা দেশে কম বেশি লিচু চাষ হলেও দিনাজপুরের লিচুর কদর আলাদা। দিনাজপুরের লিচুর মধ্যে চায়না থ্রি, বেদেনা, বোম্বাই ও মাদ্রাজি, কাঁঠালী উল্লেখয্যেগ্য।

গ্রীষ্মের মধুমাস হিসেবে পরিচিত জ্যৈষ্ঠ মাসে দিনাজপুরের সুস্বাদু ও দেশব্যাপী খ্যাত লিচু গাছগুলোতে ঝুলে থাকে থোকায় থোকায় লিচু। জ্যৈষ্ঠ মাসের শুরুতেই বেদেনা ও বোম্বাই জাতের লিচুতে রং আসতে শুরু করে। জ্যৈষ্ঠ মাসের ১০ থেকে ২০ দিনের মধ্যেই বাজারে লিচু উঠতে শুরু করে।

দিনাজপুর জেলায় ছোট-বড় নিয়ে ৩১২৮টির বেশি লিচুর বাগান রয়েছে। এসব বাগানে প্রায় ২ লাখ ২০ হাজার গাছ রয়েছে।

লিচুর বাজার

দিনাজপুরে প্রধান লিচুর বাজার পৌরসভা নিউমার্কেট। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এখানে ছোট-বড় মিলে প্রায় ৬০টি মোকামে চলে লিচুর বেচাকেনা। গত বছরের মাদ্রাজি জাতের লিচু বিক্রি হয়েছে ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা, বোম্বাই জাতের লিচু ৩০০ থেকে ৩২৫ টাকা, বেদেনা ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা ও চায়না থ্রি ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা দরে।

কীভাবে যাবেন

দিনাজপুর যাওয়ার জন্যে রয়েছে ট্রেন ও বাসের ব্যবস্থা। ট্রেনে গেলে আরামদায়ক এবং নিরাপদভাবে ১০ ঘণ্টায় দিনাজপুর পৌঁছে যাবেন। মঙ্গলবার ছাড়া প্রতিদিন সকাল ১০টায় একতা এক্সপ্রেস, বুধবার ছাড়া প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিটে দ্রুতযান এক্সপ্রেস যায় দিনাজপুর। দিনাজপুর থেকে বুধবার ছাড়া প্রতিদিন সকাল ৭টা ৪০ মিনিটে দ্রুতযান এক্সপ্রেস এবং সোমবার ছাড়া প্রতিদিন রাত ৯টা ২০ মিনিটে একতা এক্সপ্রেস আন্তঃনগর ট্রেন ছেড়ে যায় ঢাকার উদ্দেশ্যে।

বাসে যেতে চাইলে ঢাকার কল্যাণপুর ও গাবতলী থেকে নাবিল পরিবহনের এসি বাসে যেতে পারেন দিনাজপুর। এছাড়া এ পথে নাবিল পরিবহন, হানিফ এন্টারপ্রাইজ, এস আর ট্রাভেলস, কেয়া পরিবহন, এসএ পরিবহন, শ্যামলী পরিবহনের নন এসি বাসও চলাচল করে। নাবিল পরিবহনের এসি বাসের ভাড়া হাজার টাকা। এছাড়া নাবিল পরিবহন, হানিফ এন্টারপ্রাইজ, এস আর ট্রাভেলস, কেয়া পরিবহন, শ্যামলী পরিবহন ইত্যাদি ননএসি বাসের ভাড়া ৫শ’ থেকে ৬শ’ টাকা।

কিভাবে যাবেন লিচু বাগান

দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে উপজেলাতে আছে প্রায় ১২০০ লিচু বাগান। এছাড়া জেলা সদরের মাশিমপুর লিচুর জন্য অনন্য এক জায়গা। এ এলাকার লিচু গাছগুলো বয়সেও পুরনো। দিনাজপুর শহর থেকে রামসাগরের দিকে চলে যাওয়া সড়কটি ধরে সামনের দিকে কিছুক্ষণ চলার পরেই মাশিমপুর। এই রাস্তার দুইপাশে প্রচুর লিচু গাছ। মাশিমপুর এলাকার বাড়ির অঙিনা এবং আশপাশেই লিচুগাছ বেশি।

এ ছাড়া দিনাজপুর জেলার কাহারোল উপজেলার কান্তনগরেও রয়েছে প্রচুর লিচু বাগান। কান্তজীর মন্দির এবং নয়াবাদ মসজিদ যাবার পথে এই বাগানগুলো দেখতে পাবেন। শহর থেকে অটো ভাড়া করে মাসিমপুরের এবং কান্তনগরের নয়াবাদ গ্রামের লিচু বাগান ঘুরে দেখতে পারবেন।

কোথায় থাকবেন

দিনাজপুরের থাকার মনো নানা মানের ব্যবস্থা রয়েছে। বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের মোটেলটির অবস্থান শহরের এক প্রান্তে সুন্দর একটি জায়গায়। এসি টুইন রুমের ভাড়া ১৯০০ টাকা। ঢাকার মহাখালীর পর্যটটের হেড অফিস থেকে বুকিং করে যেতে পারবেন। এ ছাড়া শহরের মালদহ পট্টিতে রয়েছে হোটেল ডায়মন্ড (ফোন : ০১৭২০-৬৮৯২৯৭), এখানে ১২০০ টাকায় দুজন থাকার মতো এসি রুম পাবেন, নন এসি রুম ৫০০-৮০০ টাকা। হোটেল ইউনিক, হোটেল মৃগয়াসহ রয়েছে নানা মানের হোটেল। এসব হোটেলেও ৫০০ টাকা থেকে শুরু করে নানা মানের রুম পাবেন।

×

করোনার প্রাদুর্ভাব বেরে যাওয়ায় অনেক ট্যুরিষ্ট প্লেস গুলোতে ভ্রমণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তাই সেখানে ভ্রমণের প্ল্যান করলে আগে থেকে ভালো ভাবে খোঁজ খবর নিয়ে যাবেন।

দিক নির্দেশনা

আপনার রিভিউ দিন

* বাধ্যতামূলক ভাবে পূরণ করতে হবে।

  1. Kolom er gas laganor koto din por gas a lichu dhore