Satvaikhum, Bandarban (সাতভাইখুম, বান্দরবান)

সাতভাইখুম

অমিয়াখুমের ঝর্ণা থেকে সামান্য উপরে উঠলেই শুরু হয় ছোট-বড় অনেক পাথর দিয়ে সাজানো পাথুরে রাস্তা। খুব সাবধানতার সাথে রাস্তাটুকু পার করার পরে সামনে পড়বে বিশাল আকৃতির পাথরের পাহাড় আর তার মাঝে সবুজ, শান্ত, স্বচ্ছ জলধারা। আর এখান থেকে শুরু সাতভাইখুম। অনেকে ভেলাখুম (Velakhum) ও বলে থাকে। পরের পথটুকু যেতে হবে বাঁশের ভেলায় করে। অর্থ্যাৎ … বিস্তারিত

Chingri Jhorna, Bandarban (চিংড়ি ঝর্ণা, বান্দরবান)

চিংড়ি ঝর্ণা

বান্দরবান মানেই পাহাড়ের দেশ, বান্দরবান মানেই সবুজের দেশ, বান্দরবান মানেই ঝর্ণার দেশ। আর ঝর্ণা শব্দটাই কেমন যেন রিনিঝিনি ছন্দময় আনন্দময় আবহ জাগায় শরীর ও মনে। ইচ্ছে হয় ওর পানির সৌন্দর্য্য আর শীতলতায় ধুয়ে ফেলি জীবনের সব কালিমা। বগালেক থেকে কেওক্রাডং এর পথে ঘন্টাখানেকের পাহাড়ি পথ পাড়ি … বিস্তারিত

Keokradong, Bandarban (কেওক্রাডং, বান্দরবান)

কেওক্রাডং

কেওক্রাডং বাংলাদেশের পঞ্চম সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ। এর উচ্চতা ৩১৭২ ফুট। এটি বাংলাদেশের বান্দরবানের রুমা উপজেলায় অবস্থিত। এক সময় এটিই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ ছিল। যদিও আধুনিক গবেষণায় এই তথ্য ভুল প্রমাণিত হয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ সাকাহাফং বা মদক তুং। দূর থেকে কেওক্রাডংয়ের চূড়াকে ধোয়াটে … বিস্তারিত

Amiakhum, Thanchi, Bandarban (আমিয়াখুম, থানচি, বান্দরবান)

আমিয়াখুম

আমিয়াখুম বান্দরবানের অসাধারণ একটি জলপ্রপাত বা ঝর্ণা। পাথর আর সবুজে ঘেরা পাহাড়ের মধ্য দিয়ে প্রবল বেগে নেমে আসছে জলধারা। দুধসাদা রঙের ফেনা ছড়িয়ে তা বয়ে চলেছে পাথরের গা বেয়ে। নিমেষেই ভিজিয়ে দিচ্ছে পাশের পাথুরে চাতাল। সঙ্গে অবিরাম চলছে জলধারার পতন আর প্রবাহের শব্দতরঙ্গ। … বিস্তারিত

Milonchori, Bandarban (মিলনছড়ি, বান্দরবান)

মিলনছড়ি

মিলনছড়ি বান্দরবান শহর থেকে ৩ কিঃমিঃ দক্ষিণ পূর্বে শৈলপ্রপাত বা চিম্বুক যাওয়ার পথে পড়ে। এখানে একটি পুলিশ ফাড়ি আছে। পাহাড়ের বেশ উপরে রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে পূর্ব প্রান্তে অবারিত সবুজের খেলা এবং সবুজ প্রকৃতির বুক ছিঁড়ে সর্পিল গতিতে বয়ে যাওয়া সাঙ্গু নামের মোহনীয় নদীটি দেখা যাবে। যাওয়ার উপায়ঃ প্রথমে আপনাকে বান্দরবান শহরে … বিস্তারিত

Chimbuk Hill, Bandarban (চিম্বুক পাহাড়, বান্দরবান)

চিম্বুক

বাংলাদেশের তৃতীয় বৃহত্তম পর্বত চিম্বুক । চিম্বুক সারা দেশের কাছে পরিচিত নাম। বান্দরবান জেলা শহর থেকে ২৬ কিলোমিটার দূরে চিম্বুক পাহাড়ের অবস্থান। সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে এর উচ্চতা প্রায় ২৫০০ শত ফুট। চিম্বুক যাওয়ার রাস্তার দুই পাশের পাহাড়ী দৃশ্য খুবই মনোরম। … বিস্তারিত

Shaila Propat, Bandarban (শৈল প্রপাত, বান্দরবান)

শৈল প্রপাত

বান্দরবান রুমা রাস্তার ৮ কিলোমিটার দূরে শৈল প্রপাত অবস্থিত। এটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপূর্ব সৃষ্টি। সারাক্ষণ ঝর্ণার হিমশীতল পানি এখানে বয়ে যাচ্ছে। এই ঝর্ণার পানিগুলো খুবই স্বচ্ছ। বর্ষাকালে এ ঝর্ণার দৃশ্য দেখা গেলেও ঝর্ণাতে নামা বেশ কঠিন। বছরের বেশিরভাগ সময় দেশী বিদেশী পর্যটকে ভরপুর থাকে। রাস্তার পাশেই শৈল … বিস্তারিত

Nafakhum, Bandarban (নাফাখুম ঝর্ণা, বান্দরবান)

নাফাখুম জলপ্রপাত

বান্দরবান জেলার থানচি উপজেলায় আশ্চর্য সুন্দর নাফাখুম জলপ্রপাতটি অবস্থিত। বান্দরবন হতে ৭৯ কিমি. দুরে অবস্থিত থানচি। এটি একটি উপজেলা। সাঙ্গু নদীর পাড়ে অবস্থিত থানচি বাজার। এই সাঙ্গু নদী ধরে রেমাক্রীর দিকে ধীরে ধীরে উপরে উঠতে হয় নৌকা বেঁয়ে। প্রকৃতি এখানে এত সুন্দর আর নির্মল হতে পারে ভাবাই যায় না। নদীর দুপাশে … বিস্তারিত

Ali Cave, Alikadam, Bandarban (আলীর সুড়ঙ্গ, আলীকদম, বান্দরবান)

আলীর সুড়ঙ্গ

পার্বত্যজেলা বান্দরবানের আলীকদম উপজেলা সদর থেকে মাত্র তিন কিলোমিটার দূরেই মাতামুহুরী-তৈন খাল ঘেঁষে দাঁড়িয়ে থাকা দু‘পাহাড়ের চূঁড়ায় প্রাকৃতিক ভাবে সৃষ্ট আলীর গুহা বা আলীর সুড়ঙ্গ । ঝিরি থেকে দেড়শত ফিট উপরে এই গুহা। তবে প্রকৃতির অপরূহ এই গুহাকে ঘিরে রহস্যের … বিস্তারিত

Rupmuhuri Waterfall, Alikadam, Bandarban (রূপমুহুরী ঝর্ণা, আলীকদম, বান্দরবান)

রূপমুহুরী ঝর্ণা

এক অপরূপ ঝর্ণাদেবী দেখার অতুলনীয় অনুভুতি নিতে হলে দেখতে হবে বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার রূপমুহুরী ঝর্ণা। প্রায় দু’শ ফুট উঁচু পাহাড় থেকে ঝরে পড়ছে রূপমুহুরী ঝর্ণার শীতল বাষ্পীয় জল। এ ঝর্ণার কোথাও কোন কৃত্রিমতা নেই। প্রাকৃতিক এ ঝর্ণার শীতল জলে দাড়িয়ে স্নান … বিস্তারিত

Jadipai Waterfall, Bandarban (জাদিপাই ঝর্ণা)

জাদিপাই ঝর্ণা

বাংলাদেশের সব চেয়ে উঁচু গ্রাম পাসিং পাড়া, পাসিং পাড়া হয়ে খাড়া পথ নেমে গেছে জাদিপাই পাড়া। পাসিংপাড়ার উপর থেকে জাদিপাই পাড়াকে দেখলে মনে হবে যেন সবুজের কোলে ঘুমিয়ে থাকা একটা ছোট্ট গ্রাম। পথটা এতো বেশী খাড়া যে, কোন কোন অংশে পা ফেলা … বিস্তারিত

Golden Temple, Bandarban (স্বর্ণমন্দির, বান্দরবান)

স্বর্ণমন্দির

বান্দরবানের উপশহর বালাঘাটাস্থ পুল পাড়া নামক স্থানে স্বর্ণমন্দির এর অবস্থান যা মহাসুখ মন্দির বা বৌদ্ধ ধাতু জাদী নামে পরিচিত। নাম স্বর্ণমন্দির হলেও এখানে স্বর্ণ দিয়ে তৈরি কোন দেব-দেবীও নেই। এটি তার সোনালি রঙের জন্য বর্তমানে স্বর্ণমন্দির নামে খ্যাত। বান্দরবান জেলা সদর থেকে এর দূরত্ব ৪ কিলোমিটার। সুউচ্চ পাহাড়ের চুড়ার তৈরী সুদৃশ্য … বিস্তারিত