প্রান্তিক লেক, বান্দরবান

প্রান্তিক লেক

প্রায় ২৫ একর জায়গা জুড়ে সৃষ্ট কৃত্রিম জলাশয় প্রান্তিক লেক। প্রান্তিক লেক এর আয়তন ২৫ একর হলেও পুরো কমপ্লেক্সটি আরো অনেক বড়। ৬৮ একর এলাকা জুড়ে পাহাড় বেষ্টিত ২৫ একরের বিশাল লেক যা বগা লেক এর থেকেও বড়। জেলার এক প্রান্তে অবস্থিত বলে এই লেকের নামকরণ হয় প্রান্তিক লেক। … বিস্তারিত

মারায়ন ডং

মারায়ন ডং

বান্দরবানের আলিকদমে অবস্থিত মিরিঞ্জা রেঞ্জের একটি পাহাড় মারায়ন ডং তবে স্থানীয়রা মারায়ন তং নামেও ডেকে থাকে। উচ্চতা প্রায় ১৬৪০ ফিট। পাহাড়ের একেবারে চূড়ায় রয়েছে এক বৌদ্ধ উপাসনালয়। চারদিকে খোলা ও ওপরের দিকে চালা। এতে আছে বুদ্ধের এক বিশাল মূর্তি। দর্শনীয় স্থান হিসেবেও … বিস্তারিত

কংদুক বা যোগী হাফং, বান্দরবান

কংদুক বা যোগী হাফং

ঠিক বান্দরবান-মিয়ানমার বর্ডার এ কংদুক বা যোগীহাফং এর অবস্থান। পাহাড় প্রেমীদের কাছে যোগী হাফং পরিচিত একটি নাম। যোগী হাফং বা কংদুক ৪র্থ সর্ব্বোচ্চ পাহাড়। কংদুক বা যোগীহাফং এর উচ্চতা ৯৮৩ মিটার বা ৩২২২ ফুট। বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্তে বেশ দুর্গম অঞ্চলে অবস্থিত মোদক রেঞ্জের অন্তর্ভুক্ত এই পাহাড়টি। বাংলাদেশের মধ্যে মোদক রেঞ্জের পাহাড়গুলোর উচ্চতাই … বিস্তারিত

বাকলাই ঝর্ণা

বাকলাই ঝর্ণা

কেওক্রাডং থেকে তাজিংডং এর পথে সবচেয়ে পরিচিত গ্রাম বাকলাই। বহু বছর ধরে ট্রেকারদের সুপরিচিত আশ্রয়/ক্যাম্পিং এই বাকলাই। এর সবচেয়ে বড় কারণ এখানে আছে আর্মি ক্যাম্প যা অভিযাত্রীদের বাড়তি নিরাপত্তা নিশ্চিত করে। আর বান্দরবন জেলার থানচি উপজেলার নাইটিং মৌজার বাকলাই গ্রামেই নয়নাভিরাম এবং অনিন্দ সুন্দর এই বাকলাই ঝর্ণা অবস্তিত। ধারনা করা … বিস্তারিত

আন্ধারমানিক

আন্ধারমানিক

আন্ধারমানিক শব্দটিই রহস্যময়। এই নৈসর্গিক সৌন্দর্যময় স্থানটি নিজের চোখে দেখলে অনুভব করতে পারবেন এর বিশালতা। এর অবস্থান বান্দরবান জেলার থানছি উপজেলার বড় মদক এর পরে। বড় মদকের পর আর কোনো সেনা বাহিনী বা বিজিবি ক্যাম্প না থাকায় নিরাপত্তার কারণে প্রায়ই এখানে যেতে অনুমতি … বিস্তারিত

তুক অ / লামোনই ঝর্ণা

তুক অ / লামোনই / ডামতুয়া ঝর্ণা

তুক অ / লামোনই / ডামতুয়া ঝর্ণাটি (Damtua Waterfall) পার্বত্য বান্দরবান জেলার আলিকদমে অবস্থিত। আর ঝর্ণার নাম সাধারনত বেশীর ভাগই ঝিরির নাম অনুসারে হয়। ঝর্ণাটি যে ঝিরিতে তার নাম ব্যাঙ ঝিরি। যেহেতু মুরং এলাকায় অবস্থান তাই তাদের ভাষায় ব্যাঙ কে ” তুক” … বিস্তারিত

ডিম পাহাড়, আলীকদম, বান্দরবান

ডিম পাহাড়

দেশের ভ্রমণ পিপাসু মানুষদের কাছে বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় দেশের উচু সড়ক বান্দরবানের থানচি-আলীকদমের ডিম পাহাড়। প্রকৃতির অনাবিল সৌর্ন্দয আর বৈচিত্র্যময় জীবনধারা নিয়ে বান্দরবানের থানচি-আলীকদম ডিম পাহাড়। ডিম পাহাড়ের অবস্থান আলীকদম এবং থানচি থানার ঠিক মাঝখানে। এই পাহাড় দিয়েই দুই থানার সীমানা নির্ধারিত হয়েছে। খুব দুর্গম এই পাহাড়ে যাওয়ার কোন উপায় এতদিন ছিল না। … বিস্তারিত

Tlabong Jhorna (ত্লাবং ঝর্ণা / ডাবল ফলস)

ত্লাবং ঝর্ণা / ডাবল ফলস

ত্লাবং ঝর্ণা বা ডাবল ফলস বান্দরবন জেলার অন্যতম আকর্ষনীয় জলপ্রপাত যা দ্বৈত ঝর্ণা কিংবা জোড়া ঝর্ণা বা ক্লিবুং খাম নামেও পরিচিত। এটি রিমাক্রি খালের আদ্যস্থল। দুটি প্রবাহ প্রানশা বা প্রাংশা (বামে) ও পাঙ্খিয়াং বা পাংখিয়াং (ডানে) ঝিরি মিলে দুটি আকর্ষনীয় জলপ্রপাত তৈরী হয়েছে। ২টা ঝর্ণা একসাথে থাকার … বিস্তারিত

Mowdok Mual/Zow Tlang (জৎলং / মদক মুয়াল )

জৎলং / মোদক মুয়াল

অনেকদিন পর্যন্ত মদক মুয়াল বা জাওত্ল্যাং বা জ ত্লং বা মোদক মুয়াল পর্বতকেই কিছু কিছু লোকজন দেশের সবচেয়ে উচু চুড়া মনে করত। তবে নাসার স্যাটেলাইট ডেটা থেকে দেখা যায়এটা দেশের ২য় চুড়া। কোন কোন স্যাটেলাইট ডেটা অনুসারে রেংত্লাং রেঞ্জের দুমলং ২য় আর জ-ত্লং তৃতীয়। তবে অভিযাত্রীদলগুলো … বিস্তারিত

Saka Haphong Mountain, Bandarban (সাকাহাফং পর্বত, বান্দরবান)

সাকাহাফং পর্বত

কেওক্রাডং বা তাজিংডং নয়, বাংলাদেশের অন্যতম শীর্ষ পর্বত শৃঙ্গ হিসেবে মাথা উঁচু করে আছে বান্দরবানের সাকাহাফং পর্বত যা মদক তং বা মোদক তুয়াং নামেও পরিচিত। প্রাচীন ম্যাপে একে লিখেছে মদল তং। কেউ বলে এটা হবে মদক ত্লং। স্থানীয় অধিবাসী মুরংরা একে বলে … বিস্তারিত

Satvaikhum, Bandarban (সাতভাইখুম, বান্দরবান)

সাতভাইখুম

অমিয়াখুমের ঝর্ণা থেকে সামান্য উপরে উঠলেই শুরু হয় ছোট-বড় অনেক পাথর দিয়ে সাজানো পাথুরে রাস্তা। খুব সাবধানতার সাথে রাস্তাটুকু পার করার পরে সামনে পড়বে বিশাল আকৃতির পাথরের পাহাড় আর তার মাঝে সবুজ, শান্ত, স্বচ্ছ জলধারা। আর এখান থেকে শুরু সাতভাইখুম। অনেকে ভেলাখুম (Velakhum) ও বলে থাকে। পরের পথটুকু যেতে … বিস্তারিত

Chingri Jhorna, Bandarban (চিংড়ি ঝর্ণা, বান্দরবান)

চিংড়ি ঝর্ণা

বান্দরবান মানেই পাহাড়ের দেশ, বান্দরবান মানেই সবুজের দেশ, বান্দরবান মানেই ঝর্ণার দেশ। আর ঝর্ণা শব্দটাই কেমন যেন রিনিঝিনি ছন্দময় আনন্দময় আবহ জাগায় শরীর ও মনে। ইচ্ছে হয় ওর পানির সৌন্দর্য্য আর শীতলতায় ধুয়ে ফেলি জীবনের সব কালিমা। বগালেক থেকে কেওক্রাডং এর পথে ঘন্টাখানেকের পাহাড়ি পথ পাড়ি দিলেই এই চমৎকার ঝর্ণাটা পাবেন, কিন্তু … বিস্তারিত