ঝর্ণা ও ট্রেইলে গেলে যেসব পূর্ব প্রস্তুতির দরকার তা নিয়ে বিস্তারিত

যুক্ত করা হয়েছে

বর্ষকালে বাংলাদেশের মোটামুটি সব ঝর্ণাতে হুমড়ি খেয়ে পড়ি আমরা। এই ঝর্ণাগুলো সব যে সহজ বা সব যে কঠিন ট্রেইলে অবস্থিত তা কিন্তু নয়। তাই এসব ঝর্ণায় যেতে চাইলে চাই পূর্ব প্রস্তুতি। ঝর্ণা ও ট্রেইলে গেলে কি কি করা উচিত তা নিয়ে বিস্তারিত আমার এই পোস্ট।

ঝর্ণা ও ট্রেইলে যাওয়ার প্রস্তুতি

★ স্থান সম্পর্কে জানা

স্থান সম্পর্ক ভালো ভাবে জেনে যাওয়া উচিত। আমাদের দেশে এক একটা ঝর্ণার ট্রেইল একেক রকম। তাই আপনি যে জায়গা যাবেন তা সম্পর্কে ভালো ভাবে জেনে যাবেন। না হলে বিপদে পড়ার সম্ভাবনা বেশী।

★ ব্যাগ নির্বাচন

আপনি কোথাও বেড়াতে গেলে প্রয়োজন হয় ব্যাগের। অনেক সময় আমরা ব্যাগ নিবার্চন করতে ভুল করি যার কারণে ট্যুরে গিয়ে আসহনীয় কষ্ট করতে হয়। তাই কোথাও যাওয়ার আগে একটি পাতলা ওয়াটার প্রুফ ভালো ট্রাভেল ব্যাগ নিবার্চন করা খুব গুরুত্বপূর্ণ।
কখনো হ্যান্ড ব্যাগ, ভ্যানিটি ব্যাগ, পার্স, কলেজ ব্যাগ, লাগেজ নিবেন না।

★ জুতা নিবার্চন

আপনি কোথাও যাচ্ছেন আর একটু পর পর আচাড় খাচ্ছেন তাহলে আপনার ট্যুরটা কেমন হবে চিন্তা করেন। আমার দেখা অনেকে জুতার কারণে নাক ফাটছে, হাত পায়ে ব্যাথা পেয়েছে। তাই যাওয়ার আগে প্রথমেই গ্রীপ ওয়ালা ভালো মানের জুতা নির্বাচন করুন।কারণ আপনার ট্যুর শেষ ও নিরাপদ করতে জুতা আপনাকে বন্ধুর মতো সঙ্গ দিবে।

কখনো হিল, গ্রীপ ছাড়া জুতা ব্যাবহার করবেন না।

★ কাপড়চোপড় নির্বাচন

ট্যুরে অন্যতম সহায়ক ভূমিকা পালন করে কাপড় চোপড়। আপনি ট্যুরে এমন কাপড় চোপড় পড়ুন যেন তা পাতলা হয় এবং দ্রুত শুকিয়ে যায়। সবচেয়ে ভালো হয় সাদা কাপড় ব্যাবহার করলে তাহলে গরম কম লাগবে। ফুলহাতা শার্ট, মোটা জিন্স, লেহেঙ্গা ভারী জামাকাপড় না পড়াই ভালো।

আর পারলে লুঙ্গী ও গামছা নিয়েন অনেক উপকার পাবেন।

★★ ফাস্ট এইড

ট্যুরে গেলে অবশ্যই ফাস্টএইড নিয়ে যাবেন। কারণ প্রায় জায়গাতে আপনি কোন ফার্মেসী পাবেন না।

কি কি নিবেন – তুলা, ডেটল, ব্যান্ডেস, ওয়ান টাইম ব্যান্ডেস, এমোডিস ট্যাবলেট, প্যারাসিটামল, ডক্সিসাইক্লিন, গ্যাস্টিকের ঔষধ, স্যালাইন, কাঁচি।

★ খাবার নিবার্চন

ট্যুরে খাবার খাবেন খুব বুঝেশুনে, কারণ খাবারের কারণে আপনার অনেক সমস্যা হতে পারে। অতিরিক্ত তেল জাতীয় খাবার পরিহার করবেন।

★ জোঁক হতে সাবধানতা

আপনার টেকিং পথে ওত পেতে থাকবে জোঁক তা থেকে বাঁচার জন্য সবসময় সবধান থাকবেন। রক্ত পড়া বন্ধ না হলে আক্রান্ত স্থানে একটা বুটের ডালের হাফ অংশ দিয়ে চেপে ধরে রাখবেন ৪/৫ সে. এর ভিতর রক্ত বন্ধ হয়ে যাবে।

★ গাইড নির্বাচন

যেকোন অপরিচিত টেকিং ট্যুরে গেলে অবশ্যই গাইড নিয়ে যাবেন। কারণ তারা বিপদজনক জায়গা গুলো সম্পর্কে ভালো জানে। কিছু টাকার জন্য অনেক বড় ক্ষতি হয়ে যেতে পারে।

★ পানি বয়ে চলা ট্রেইল

এসব ট্রেইলে অব্যশই দড়ি, লাঠি নিয়ে যাবেন।

★ ছাতা, রেইনকোট,লাইট নিয়ে বের হওয়া ভালো।
★ পাহাড়ী ডল সম্পর্কে সচেতন থাকবেন।
★ বর্ষাকালে তাবু ব্যাবহার না করাই ভালো, কারণ বর্ষা তে সাপের উপদ্রব বেশী থাকে।
★ লাইফ জ্যাকেট নিয়ে যাবেন।

যা করবেন না ট্যুরে গিয়ে

  • কখনো শ্যাওলা পড়া পাথরে লাফালাফি করবেন না।
  • পাহাড়ে ওঠার সময় কখনো পরে থাকা শুকনা গাছে ধরবেন না।
  • পাহাড়ে থাকা লতাপাতা, ছোট ছোট গাছ ভালো করে খেয়ল করে ধরবেন।
  • না জেনে কোথাও লাফ দিবেন না।
  • স্থানীয়দের সাথে খারাপ ব্যাবহার করবেন না।
  • একা একা অপরিচিত ট্রেইলে হাঁঠবেন না।
  • ঝর্ণার পানি খুব বিপদে না পরলে খাবেন না।
  • পাথর গুলো আলগা থাকে তাই বুঝে শুনে পা দিবেন

আর ট্যুর রিলেটেড ভালো পন্য কিনতে পারবেন বসুন্ধরা সিটি ,আজিজ সুপার মার্কেট থেকে। এছাড়া গুলিস্তান, বায়তুল মোকারম মার্কেটে ও পাবেন এইসব প্রয়োজনীয় উপকরণ।