নিজে নিজেই ভারতের ট্রেনের টিকিট কাটুন

যুক্ত করা হয়েছে

ভারত ভ্রমণের সব থেকে উত্তম মাধ্যম হলো ট্রেনে ভ্রমণ করা। বিমান অনেকটা ব্যয়স্বাপেক্ষ ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায় অনেকের কাছেই। আর সেক্ষেত্রে ট্রেন সবথেকে ভালো চয়েজ। ভারতের এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় ভ্রমণ করতে গেলে অনেক সময় লাগে, তাই বাসের থেকে ট্রেনে ভ্রমণ করায় অনেক রিলাক্স মিলে। আর তাই রেলের টিকেটের উপর চাপটাও থাকে অনেক বেশি। অগ্রীম টিকেট না কেটে রাখলে অধিকাংশ সময়েই টিকেট মিলানো হয়ে যায় সোনার হরিণের মতো। আর বাংলাদেশ থেকেি যদি ইন্ডিয়ার ট্রেনের টিকেট কেটে নেয়া যায় তাহলে অনেক দুশ্চিন্তা থেকেই মিলে মুক্তি। তাহলে দেখে নেয়া যাক কিভাবে ভারতের ট্রেনের টিকেট কাটবেন নিজে নিজেই।

প্রথম ধাপঃ

প্রথমে আপনাকে www.irctc.co.in একটা আকাউন্ট খুলতে হবে। এখানে অ্যাকাউন্ট করাটা ঝামেলার আবার বুদ্ধি থাকলে সোজা। এখানে অ্যাকাউন্ট করতে হলে একটা Indian নাম্বার লাগবে। Sign Up করার সময় জাতীয়তা বাংলাদেশ দিবেন। আর Residential Address এর ওখানে *Pin বলতে আপনার এলাকার কোড, যেমন ধানমণ্ডি ১২০৯ বা লালমনিরহাট ৫৫০০ এটা। যাদের Indian নাম্বার নেই তারা 9999999999 দিতে চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

দ্বিতীয় ধাপঃ

এর পর নিজের অ্যাকাউন্ট এ লগ ইন করুন। ফোন আর ই-মেইল ভেরিফাই করুন। আর সব শেষে care@irctc.co.in এর ঠিকানায় আপনার Passport এর একটা স্ক্যান বা ছবি পাঠায় দিন আপনার User Name সহ ( না দিলেও কিছু হবে না , বাট চেষ্টা করবেন দিতে )। এর পর স্বাভাবিক নিয়মেই টিকিট কাটুন ( দেখলেই বুঝে যাবেন, সোজা প্রসেস )। এখানে একটা জিনিস মাথায় রাখবেন টিকিট কেনার সময় অবশ্যই জাতীয়তা বাংলাদেশী দিবেন। এর পর পাসপোর্ট নাম্বার দিবেন আর অবশ্যই E-Ticket.

তৃতীয় ধাপঃ

ট্রেন ও টিকিট নিশ্চিত করার পর আপনি যখন পেমেন্ট অপশনে যাবেন। তখন আপনার ট্রাভেল কার্ড বা ইন্ডিয়ান কোন ব্যাংক বা American Express বা International Card ( Master বা ভিসা ) দিয়ে পেমেন্ট দিতে হবে। এখানে টিকিট আপনাকে PDF আকারে দিবে। যাত্রার সময় টিকিট প্রিন্ট + নিজের পাসপোর্ট এর ফটোকপি একসাথে করে টিটিকে দেখাতে হবে।

সাবধানতাঃ

১. IRCTC সরকারি Website সো কোন ২ নাম্বারি নাই।
২. এক অ্যাকাউন্ট দিয়ে এক সাথে সর্বাধিক ৬ জনের টিকিট কাটতে পারেন।
৩. ভ্রমণের সময় অবশ্যই টিকিটের কপির সাথে পাসপোর্ট এর ফটোকপি দিবেন। না হলে জরিমানা নিশ্চিত।
৪. অবশ্যই ভ্রমনের ১০ দিন আগে টিকিট বুক করবেন। না হলে টিকিট পাবার সম্ভাবনা কম।
৫. যার অ্যাকাউন্ট তাকে অবশ্যই ভ্রমন করতে হবে। সো নিজের অ্যাকাউন্ট করে অপরিচিত কাউকে বা ব্যাবসা শুরু করে দিবেন সে রকমের কোন সুযোগ নেই।

IRCTC কিছু সাধারন সুবিধাঃ

IRCTC সম্পূর্ণ ভাবে ইন্ডিয়ান সরকার নিয়ন্ত্রিত। এখান থেকে শুধু যে ট্রেন টিকিট কাটতে পারবেন তা কিন্তু না। এখানে রয়েছে সরকার নিয়ন্ত্রিত বাস, ক্যাব ও বিমানের টিকিট কাটার সুবিধা।

এই পদ্ধতিতে যারা টিকেট কাটতে না পারবেন তারা এই পোষ্টটা দেখে নিতে পারেন।