মণিকরণ

মানালি থেকে কুলু পার হয়ে বিয়াসকে সঙ্গী করে চলে যেতে পারেন হিন্দু ও শিখদের এক ধর্মক্ষেত্রে মণিকরণ (Manikaran) এ। এখানের পার্বতী নদীর উষ্ণ প্রস্রবণে অবগাহন করে পবিত্র হন ভক্তকুল। কুলু থেকে কাসল হয়ে মণিকরণ যাওয়া যায়। এ পথের যে দিকে তাকানো যায় সেদিকেই কেবল ছবি। বিপাশা এখানে বিয়াস নাম নিয়েছে। তার রূপমাধুর্যের … বিস্তারিত

কাসল, কুল্লু, হিমাচল প্রদেশ, ভারত

কাসল

কাসল, হিমাচল প্রদেশের কুল্লু জেলার একটি গ্রাম। পার্বতি নদীর তীরে অবস্তিত কাসল। এই অসাধারণ গ্রাম তার সরলবর্গীয় বন ও পাহাড়ের জন্য জনপ্রিয় বেশ জনপ্রিয়। কাসল (Kasol) প্রকৃতিপ্রেমি এবং পাহাড় আরোহী সকলের কাছেই একটি আনন্দদায়ক জায়গা। কাসল থেকে একটা গাড়ি ভাড়া করে ঘুরে আসতে পারেন তশ গ্রাম, আসা-যাওয়া ভাড়া নিবে ১৫০০ রুপী এর মত। … বিস্তারিত

লামাহাট্টা, দার্জিলিং, ভারত

লামাহাট্টা

প্রতিদিনের ব্যস্ত জীবনের কোলাহল থেকে মুক্তি পেতে ঘুরে আসতে পারেন দার্জিলিং এর চাকচিক্য থেকে অনেক দূরে শেরপাদের গ্রাম লামাহাট্টায় (স্থানীয় উচ্চারণ-এ লামাট্টা)। ৫৭০০ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত এই গ্রামে তামাং, ভুটিয়া, ডুকপা ইত্যাদি পার্বত্য উপজাতির বাস। তিব্বতী লামাদের ভারত সরকার এইখানে বসবাসের ব্যবস্থা করায়, সেই থেকে … বিস্তারিত

তাকদা, দার্জিলিং, ভারত

তাকদা

তাকদা দার্জিলিং এর মূল শহর থেকে কমবেশি ৩০ কিমি দূরে। এখান থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখা যায় না, কিন্তু দেখা যায় দিগন্ত বিস্তৃত ঘন সবুজের সমারোহ আর বিখ্যাত সমস্ত কোম্পানীর চা বাগান। উত্তরবঙ্গের গ্রামীণ পর্যটনের সেরা জায়গাগুলোর মধ্যে অন্যতম। অপূর্ব নৈসর্গিক শোভা তাকদার অন্যতম আকর্ষন। এইখানে পর্যটকদের থাকার জায়গাগুলো পাহাড়ের উপর দিকে আর যারা চা বাগানে … বিস্তারিত

সামসিং, ডুয়ার্স, ভারত

সামসিং

ডুয়ার্স এর সামসিং আদতে ছোট একটি পাহাড়ি জায়গা যা প্রকৃতি প্রেমিকদের ভাল লেগে যাবেই এটা নিশ্চিত ভাবে বলা যায়! শিলিগুড়ি থেকে ৮২ কিলো দূরের সামসিং (Samsing) সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে আনুমানিক ৩০০০ ফিট উচুতে অবস্থিত। সামসিং এমনিতে ভারী শান্ত। শহরের গোলমাল, ধুলো-ধোঁয়া থেকে দূরে, … বিস্তারিত

দিরাং, অরুণাচল প্রদেশ, ভারত

দিরাং

বমডিলা থেকে তাওয়াং যাওয়ার পথে ৪২কিমি দূরে ছোট্ট জনপদ দিরাং – অপরূপ সুন্দর। দিরাং এ থেকে বেড়িয়ে নেওয়া যায় ১০কিমি দূরের সাংতি ভ্যালি (Sangti Valley) ও ভেড়া প্রজনন কেন্দ্র (Sheep Breeding Farm), উষ্ণ প্রস্রবণ, ওয়ার মেমোরিয়াল  ও চুগ ভ্যালি (Chug Valley) ও মনাস্ট্রি। সাংতি নদীর ওপর … বিস্তারিত

ভালুকপং, আরুণাচল প্রদেশ, ভারত

ভালুকপং

আসাম সীমান্তে অরুণাচল প্রদেশের পাহাড় আর অরণ্যে ঘেরা রমণীয় গন্তব্য ভালুকপং। আসাম এর তেজপুর থেকে ভালুকপংয়ের দূরত্ব মাত্র ৬০ কিমি। আসামে লোয়ার ও অরুণাচলে আপার ভালুকপং। শহরের মধ্যিখানে জিরো পয়েন্ট আর হলুদরঙা তোরণদ্বার। জিয়াভরলি নদীর তীরে এই ছোট্ট সবুজ শহরটি তার অপরূপ সৌন্দর্যের জন্যই পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় … বিস্তারিত

বমডিলা, অরুনাচল প্রদেশ, ভারত

বমডিলা

সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২৪৩৮ মিটার বা ৮২০০ ফুট উঁচুতে অবস্থিত বমডিলা অরুণাচল প্রদেশের কামেং জেলার একটি ছোট্ট শহর যা মেঘের আপন ঘর হিসাবে পরিচিত। হটাৎ এক পশলা বৃষ্টির পর আকাশ হয়তো সোনালী রোদে ঝলমল করবে আবার পরক্ষণেই আবার মেঘাছন্ন হয়ে পড়বে বমডিলা (Bomdila) এর আকাশ। উঁচু নিচু ধাপে পাহাড়, ভিলাধর্মী ঘরবাড়ি। বর্ণময় মনপা উপজাতিদের বাস। … বিস্তারিত

লাটপানচার

লাটপানচার

মহানন্দা ওয়াইল্ড লাইফ স্যাংচুয়ারির প্রায় শীর্ষে ৪৫০০ ফুট উচ্চতার এক গ্রাম লাটপানচার। এমন এর অবস্থান যে গরম কালে নিম্ন উচ্চতার পাখিরা উপরে উঠে এখানে আশ্রয় নেয় আর শীত কালে অধিক উচ্চতার পাখিরা নেমে আসে। পাখিপ্রেমীদের কাছে স্বর্গরাজ্য বলা যেতে পারে। প্রায় ৩৬ রকমের … বিস্তারিত

রাবাংলা, সিকিম, ভারত

রাবাংলা

সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে সাত হাজার ফুট উঁচুতে বসে চায়ে চুমুক দিতে দিতে বরফঢাকা কাঞ্চনজঙ্ঘা দর্শন৷ স্বপ্নের মতো শোনালেও রাবাংলায় (Ravangla) পাড়ি দিলেই এ দৃশ্য বাস্তবে রূপান্তরিত হবে৷ বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্যের ঐতিহ্যকে সযত্নে বহন করে নিয়ে চলেছে সিকিমের রাবাংলা৷ সিকিমের সবকটি শহরের মধ্যে পর্যটকদের সবচেয়ে প্রিয় শহর এই রাবাংলা৷ শহরের … বিস্তারিত

চারখোল, দার্জিলিং, ভারত

চারখোল

নিছক ঘুরতে যাওয়া নয়৷ প্রকৃতির কোলে এক অনন্য শান্তির মাঝে কয়েকটা দিন কাটানো৷ নিঝুম রাতে শীতের পরশে কালো আকাশে জ্বলজ্বল করতে থাকা তারামণ্ডলকে নতুন করে চেনা৷ ভূপৃষ্ঠ থেকে ৫,০০০ হাজার ফুট উপরে শান্তির এই আশ্রয় – চারখোল গ্রাম৷ চারখোলের (Charkhol Village) সবচেয়ে বড় … বিস্তারিত

জোংগু, সিকিম, ভারত

জোংগু

সিকিমের রাজধানী গ্যাংটক থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত জোংগু (Dzongu) নামের ল্যাপচা অধ্যুষিত একটি গ্রাম যেখানে আজও বজায় রয়েছে লেপচা-সংস্কৃতির মূল নির্যাস। যাঁরা আসল সিকিমকে চিনতে চান, তাঁরাই খুঁজে পেতে কড়া নাড়েন জোংগুর লেপচা-বাড়ির দরজায়। নিজের মতো করে খুঁজে নেন কুমারী প্রকৃতিকে। সঙ্গে আপসে এসে ধরা দেয় সিকিমের মূল সংস্কৃতি। আসলে, গ্যাংটকে সিকিমকে খুঁজে পাওয়া … বিস্তারিত