পুনাখা

Ratings
রেটিংস 0 (0 রিভিউ)

পুনাখা ভূটানের একটি শহর এবং থিম্পু থেকে ৭২ কিমি দূরে অবস্থিত। পুনাখা ১৯৫৫ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত  ভুটানের রাজধানী এবং সরকারের আসন ছিল, যখন রাজধানী থিম্পুতে সরানো হয়েছিল। বর্তমানে ভুটানের শীতকালীন রাজধানী এই পুনাখা৷ রাজধানী থিম্পু থেকে পুনাখাতে গাড়ীতে আসতে  প্রায় ৩ ঘন্টা সময় লাগে। থিম্পু থেকে দোচুলা পাস হয়ে ড্রাইভ করে পৌঁছানো যায় পুনাখায়। দোচুলা ভুটানিদের পূণ্য ভূমি। অসংখ্য ধর্মীয় নকশাখচিত ছোট ছোট ধর্মীয় পতাকায় দোচুলা ছেয়ে আছে। দোচুলায় মূল আকর্ষণ এখানকার বৌদ্ধমঠ। আকাশ পরিস্কার থাকলে ৩০৫০মিটার উঁচু এই পাস থেকে পুরো হিমালয়ান রেঞ্জ দেখা যায়। পুনাখা ভুটানের সব থেকে উর্বর ভ্যালি।

পুনাখা এর দর্শনীয় স্থানগুলোর মধ্যে আছে ফো ছু এবং মো ছু নদী এবং বিখ্যাত পুনাখা জং। এছাড়া ন্যাশনাল লাইব্রেরি, হ্যান্ডিক্রাফট এম্পেরিয়াম, পেন্টিং স্কুল এবং ট্র্যাডিশনাল মেডিক্যাল ইনস্টিটিউটও দেখে আসতে পারেন।

পুনাখা (Punakha) এর একটা বড় আকর্ষণ এখন হয়ে উঠেছে রাফটিং। পাহাড়ি নদীপথে চারপাশের চোখজুড়োনো ছবির মতো দৃশ্য দেখতে দেখতে এগোনো। রাফটিং শুনলেই যে অ্যাডভেঞ্চারের কথা মনে হয়, তেমন গা ছমছমে ব্যাপার এখানে নেই। গাইডরা পাখিপড়া করে বুঝিয়ে দেবেন কখন কী করতে হবে। শুধু সেটুকু মেনে চললেই হল। খরচ পিক সিজনে মাথাপিছু দু’হাজার টাকা। নদীপথে ১৪ কিলোমিটার যাওয়ার পরে স্থানীয় একটি হোটেলে পোশাক বদলের ব্যবস্থা থাকে। সকাল-সকাল পুনাখা পৌঁছে রাফটিং সেরে চলে যেতে পারেন পুনাখা জং এ। ঘুরে দেখতে অনেকটা সময় লাগবে। দুপুরে ফার্টিলিটি টেম্পল ঘুরে চলে যেতে পারেন আশপাশের গ্রামে।

কখন যাবেন

যে কোনও সময়। তবে মার্চ থেকে মে এবং সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বর সবচেয়ে ভাল।

কিভাবে যাবেন

থিম্পু থেকে ট্যাক্সি করে পুনাখা যাওয়া যায়। সময় লাগে ৩ ঘন্টার মত।

কোথায় থাকবেন

পুনাখায় থাকার জন্যে বেশ কিছু হোটেল আছে। তাদের সম্পর্কে জানতে চাইলে এখানে দেখতে পারেন নয়ত booking.com বা অন্য নামকরা ওয়েবসাইট থেকে বুকিং দিতে পারবেন।

View Direction

আপনার রিভিউ দিন

* বাধ্যতামূলক ভাবে পূরণ করতে হবে।

Sending