ইগুয়াজু ফলস

Ratings
রেটিংস ( রিভিউ)

ইগুয়াজু ফলস দক্ষিণ আমেরিকায় ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনার সীমান্তবর্তী অঞ্চলে অবস্থিত। শুধু তাই না, নায়াগ্রা ফলস আর ভিক্টোরিয়া ফলসের মত ইগুয়াজু ফলসও এই দুটি দেশের সীমারেখা হিসেবেই কাজ করছে। ইগুয়াজু জলপ্রপাতের নামটা এসেছে সেখানকার আদি অধিবাসী ‘গুয়ারানি’দের কাছ থেকে। তাদের ভাষায় এই নামের অর্থ হচ্ছে ‘বিগ ওয়াটার’ বা ‘প্রচুর পানি’। এটা একটা কিংবা দু’টো জলপ্রপাত না, একসাথে প্রায় ২৭৫টা ছোট ছোট জলপ্রপাত! আর এই বিশাল সংখ্যক জলপ্রপাতগুলো একত্রে প্রায় ৩ কিলোমিটার চওড়া। বছরের যে সময়টায় বৃষ্টি হয় না তখনও এই জলপ্রপাত থেকে প্রতি মিনিটে গড়ে প্রায় ১,০০০ ঘনমিটার পানি গড়িয়ে পড়ে। সুতরাং, বুঝতেই পারছেন, কেন এই জলপ্রপাতের নাম ‘ইগুয়াজু’ রাখা হয়েছে।

প্রশস্ততার দিক দিয়ে ইগুয়াজুকে একটা বিশালদেহী দৈত্য বলা যায়। ইগুয়াজু জলপ্রপাতের শতকরা ৮০ ভাগ পড়েছে আর্জেন্টিনার মিশনিস প্রদেশে এবং বাকি ২০ ভাগ ব্রাজিলের পারানা প্রদেশে। পারানা নদী যেখানে ইগুয়াজু নদীতে মিলিত হয়েছে তার ঠিক ২৪ কিলোমিটার পূর্বে ইগুয়াজু জলপ্রপাতের শুরু। ইগুয়াজু জলপ্রপাতটি প্রায় ২.৪ কিলোমিটার জুড়ে প্রশস্ত যা প্রায় ২৭৫ টি ছোট বড় জলপ্রপাতের সমন্বয়ে গঠিত। এই মোট জলপ্রপাতের প্রকৃত সংখ্যা মৌসুমের উপর নির্ভর করে। বর্ষা মৌসুমে এর প্রশস্ততা ৪ কিলোমিটার পর্যন্ত বিস্তৃত হয়। এই জলপ্রপাত গুলোর মধ্যে সবচেয়ে উঁচু এবং বড় জলপ্রপাতটিকে ‘ডেভিলস থ্রট’ নামে ডাকা হয়। ৮০ মিটার উঁচু থেকে পতিত এ জলপ্রপাত এক ধরণের মেঘের সৃষ্টি করে, যা সত্যিই রহস্যময়। উত্তর আমেরিকার নায়াগ্রা জলপ্রপাত থেকে ইগুয়াজু প্রায় দুই গুন উঁচু। এর একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী জিম্বাবুয়ে এবং জাম্বিয়ার সীমান্তে অবস্থিত ভিক্টোরিয়া জলপ্রপাত, যার উচ্চতা ১০৮ মিটার।

প্রাচীন উপকথা মতে, একবার এক বিশাল ক্ষমতাধর দেবতা নাইপি নামের একজন সুন্দরী রমণীর প্রেমে পড়েন। দেবতা ঠিক করেন, যে করেই হোক তিনি এই মেয়েকে বিয়ে করবেন। কিন্তু নাইপি নামের মেয়েটি বেঁকে বসেন। কেননা সে ভালোবাসতো আরেকজনকে। তিনি এই দেবতার দেয়া প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন। জীবন বাঁচাতে নাইপি তার প্রেমিককে সাথে নিয়ে ইগুয়াজু নদীতে নৌকা ভাসান। দেবতা ক্রোধান্বিত হয়ে ইগুয়াজু নদীকে দ্বিখণ্ডিত করে ফেলেন। নাইপি সেই ঢাল বেয়ে নিচে পড়ে যেতে থাকেন। সেখান থেকেই ইগুয়াজু জলপ্রপাতের সৃষ্টি।

ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনার সীমান্তে দাঁড়িয়ে থাকা ইগুয়াজু জলপ্রপাত (Iguazu Falls) ১৯৮৪ সালে ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট হিসেবে ঘোষিত হয়। ২০১১ সালে বিশ্বের সপ্তম আশ্চর্যের একটি হিসেবে নির্বাচিত হয়ে এটি এর বিশেষত্ব প্রমান করে।

কিভাবে যাবেন

ইগুয়াজু জলপ্রপাতে আর্জেন্টিনা এবং ব্রাজিল দু দিক থেকেই যাওয়া যায়। আর্জেন্টিনার বুয়েন্স এয়ারস থেকে ইগুয়াজুতে পৌছাতে লাগে ৯০ মিনিট। রিও ডি জেনিরিও থেকে প্লেনে করে ইগুয়াজু পৌছাতে সময় লাগে প্রায় ২ ঘণ্টা।

আপনার রিভিউ দিন

* বাধ্যতামূলক ভাবে পূরণ করতে হবে।

Sending