পালাওয়ান দ্বীপ

Ratings
রেটিংস ( রিভিউ)

ফিলিপাইন এর স্বর্গ হল পালাওয়ান দ্বীপ। এই দ্বীপটি বোর্নিও (সাবাহ) থেকে দক্ষিণ পশ্চিমে প্রসারিত। সাগরে জেগে ওঠা লাইমস্টোনের পাহাড়গুলোকে রত্ন বলেই মনে হয়। বনাঞ্চলে পূর্ণ দ্বীপটির সৌন্দর্য ব্যাখ্যাতীত। পানির উপর থেকে মাছের চলা ফেরার দৃশ্য স্পষ্ট ভাবে দেখা যায়। চিক চিক করা সাদা বালুর উপর পাম গাছের ছায়া জঙ্গল পরিবেষ্টিত এই দ্বীপের বৈশিষ্ট্য। প্রবাল প্রাচীর, গ্রীষ্মমণ্ডলীয় মাছের বৈচিত্র্য এবং ডাইভিং এর জন্য সবচেয়ে ভালো স্থান হল পালাওয়ান (Palawan Island) দ্বীপ। এই দ্বীপের অন্য আকর্ষণীয় বিষয় গুলো হচ্ছে অনন্য বন্যপ্রাণী, পান্না হ্রদ এবং অদ্ভুত মাছ ধরার গ্রাম। মনোমুগ্ধকর দ্বীপ মালার সারিতে আছে উন্নতমানের রিসোর্ট। পালাওয়ানের সবচেয়ে আকর্ষণীয় স্থান হচ্ছে Puerto Princesa Subterranean River National Park, যা  বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় আছে। এই পার্কে আছে চিত্তাকর্ষক চুনা পাথরের গুহা এবং ভূগর্ভস্থ নদী।

একদিকে দক্ষিণ চীন সাগর অন্যদিকে সুলু সাগর। মাঝখানে ফিলিপাইনের সবচেয়ে বড় প্রদেশ। এ দ্বীপের উত্তরে মিনডোরো দ্বীপ আর দক্ষিণে বর্নিও। ৪৫০ কিলোমিটার লম্বা ও ৫০ কিলোমিটার প্রশস্ত দ্বীপটির চারপাশে আরো বেশকিছু ছোট ছোট দ্বীপ আছে। প্রস্তর শিলায় মোড়া এ দ্বীপ আর চিনির মতো ঝকঝকে বালুকারাশির সৈকত পর্যটকদের ডেকে আনে প্রশান্ত মহাসাগরীয় এ অঞ্চলে। এছাড়া এখানে আছে বিস্তীর্ণ বনাঞ্চল যা পাহাড়ের গায়ে গালিচার মতো লেগে আছে। এ দ্বীপের পাহাড়ের গড় উচ্চতা ৩৫০০ ফুট। আর সবচেয়ে উঁচু পর্বত ‘মাউন্ট ম্যান্টালিঙ্গাহান’ এর উচ্চতা ৬৮৪৩ ফুট। সৈকতে সময় কাটানোর পাশাপাশি পর্যটকরা এখানে বিস্তীর্ণ বনাঞ্চল ঘুরে দেখা, উপত্যকা আর পাহাড়ের গা বেয়ে ওঠার স্বাদ নিতে পারেন। আর এ কারণেই পালওয়ান সৈকত পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় সৈকতগুলোর মধ্যে একটি।

কিভাবে যাবেন

ঢাকা থেকে বিমানে ফিলিপাইনের ম্যানিলা। এক্ষেত্রে কুয়ালামপুরে ট্রানজিট নিতে হবে। ভাড়া পড়বে ৭০০-৭৫০ ডলারের মধ্যে। ম্যানিলা থেকে পালাওয়ান দ্বীপের Puerto Princesa ফ্লাইট আছে, ভাড়া পড়বে ৩০-৩৫ ডলারের মতো।

আপনার রিভিউ দিন

* বাধ্যতামূলক ভাবে পূরণ করতে হবে।

Sending